advertisement
আপনি পড়ছেন

দেশে করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ১১ দফা বিধিনিষেধ জারি করেছে, যা আজ থেকে কার্যকর হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার থেকে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের কথা বলা হয়েছিল। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বা বিআরটিএ’র সঙ্গে বৈঠক করে ভাড়া না বাড়িয়ে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের বিষয়ে রাজি হয়েছিলেন বাস মালিকরা।

new decision in mass transportযত আসন তত যাত্রী, গণপরিবহনে নতুন সিদ্ধান্ত, ফাইল ছবি

কিন্তু আজ বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি, সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। বলা হচ্ছে, যত সিট তত যাত্রী পরিবহন করা হবে। অপরদিকে, বিআরটিএ জানিয়েছে, নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গণপরিবহনে যত আসন রয়েছে তত যাত্রী পরিবহন করা যাবে। তবে সবার স্বাস্থ্যববিধি মানার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

এ বিষয়ে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, বিআরটিএর চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার আমাদের জানিয়েছেন, আগামী শনিবার, ১৫ জানুয়ারি, থেকে যত আসন তত যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারবে গণপরিবহন। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করলে পরিবহন সংকট দেখা দেয়। তবে যাত্রী, পরিবহন চালক এবং হেলপারদের কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

fare launch not increasedযত আসন তত যাত্রী, গণপরিবহনে নতুন সিদ্ধান্ত, ফাইল ছবি

তিনি আরো বলেন, বিআরটিএর এই বার্তা আমরা সব পরিবহন মালিকদের কাছে পৌঁছে দিয়েছি। তবে সরকারের ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি যারা মানবে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে আমরা পুলিশ প্রশাসনকে অনুরোধ করেছি, তারা যাতে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টি দেখেন। এ লক্ষ্যে আমরা আমাদের হেলপার ও চালকদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।

এর আগে গত ১০ জানুয়ারি, সোমবার, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। ১১ দফা বিধিনিষেধের একটি ধারায় বলা হয়— বাস, ট্রেন ও লঞ্চে ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী নেওয়া যাবে। সব ধরনের যানবাহনের চালক ও সহকারীদের আবশ্যিকভাবে কোভিড-১৯ টিকার সনদধারী হতে হবে।