advertisement
আপনি পড়ছেন

দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন হলিউড হার্টথ্রব লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় নিজের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি পোস্টে এ অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন তিনি।

st martin dicaprioসেন্টমার্টিন ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, ফাইল ছবি

টুইটে সেন্টমার্টিনের চারপাশে সামুদ্রিক সুরক্ষিত অঞ্চল গড়ে তোলায় সরকার, স্থানীয় জনগোষ্ঠী ও এনজিওগুলোকে অভিনন্দন জানান মার্কিন তারকা ডিক্যাপ্রিও। এ পদক্ষেপের ফলে জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে, প্রাকৃতিক আবাসস্থল জোগান দেবে, উল্লেখ করেন তিনি।

সাম্প্রতিক সময়ে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় সোচ্চার ডিক্যাপ্রিও, বিভিন্ন প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন তিনি। সামাজিকমাধ্যমের পোস্টের বেশিরভাগই জলবায়ু সম্পর্কিত দেখা যায়, তাতে এবারই প্রথম বাংলাদেশের নাম উঠল।

leonardo dicaprioবাংলাদেশকে ডিক্যাপ্রিওর অভিনন্দন

এর আগে গত ৪ জানুয়ারি সেন্টমার্টিনের ১ হাজার ৭৪৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে ‘মেরিন প্রটেক্টেড এরিয়া’ ঘোষণা করে সরকার। বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন, ২০১২ এর ধারা ১৩ (১) ও ১৩ (২)-এর ক্ষমতাবলে এ সংক্রান্ত ঘোষণা দেয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অনিয়ন্ত্রিত জাহাজসহ ইঞ্জিনচালিত নৌকাযান চলাচল, মাত্রাতিরিক্ত মৎস্য শিকার, সমুদ্রে বর্জ্য ও ক্ষতিকারক রাসায়নিক পদার্থ ফেলায় হুমকির মুখে রয়েছে সেন্টমার্টিন। এতে সেখানকার জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হচ্ছে এবং জলবায়ু পরিবর্তনে ভূমিকা রাখছে।

এমন প্রেক্ষাপটে ইতোপূর্বে ঘোষিত ৫৯০ হেক্টর প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকার অতিরিক্ত বঙ্গোপসাগরের ৭০ মিটার গভীর সমুদ্রের ১ হাজার ৭৪৩ বর্গ কি.মি. এলাকাকে মেরিন প্রটেক্টেড এরিয়া ঘোষণা করা হয়েছে। । বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইনে এ পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।