advertisement
আপনি পড়ছেন

বাংলাদেশের আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অবাধ হয়, তার ওপর জোর দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ইইউ। এর পাশাপাশি ডিজিটাল মাধ্যমে অপরাধ দমন করতে গিয়ে যেন কোনোভাবেই মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো ঘটনা ঘটে, সেদিকে নজর রাখার তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

bangladesh eeu flagবাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের পতাকা

গতকাল শুক্রবার (২০ মে) ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ-ইইউ’র দশম যৌথ কমিশন। বৈঠকে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন সরকারের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের যুগ্ম সচিব ফাতিমা জেসমিন। ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষে ছিলেন সংস্থাটির এক্সটারনাল অ্যাকশন সার্ভিসের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর পাওলা পাম্পালোনি।

দিনব্যাপী এই বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট, জলবায়ু পরিবর্তন, ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের প্রয়োগ, মানবাধিকার পরিস্থিতি, উন্নয়ন সহযোগিতাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

তবে মূল আলোচনা হয় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে। সেই নির্বাচন আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের জন্য উন্মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।