advertisement
আপনি দেখছেন

শিশু-কিশোরদের পড়াশোনায় গতি আনতে এবং শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরো আধুনিক করতে নতুন নিয়ম চালু করতে যাচ্ছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডাবল শিফট পাঠদান বাতিল করে দেশের সকল প্রতিষ্ঠানে সিঙ্গেল শিফট চালু করা হবে। শিক্ষার্থীদের যেন বাড়িতে বসে পাঠ্য মুখস্ত করতে না হয়, সে জন্যই এ সিদ্ধান্ত।

primary mass education ministry logo

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানায়, এতদিন শ্রেণি শিক্ষক নির্ধারিত বিষয়ের একটি পাঠ্য শিক্ষার্থীদের বাড়ি থেকে মুখস্থ করে আসতে বলতেন এবং পরদিন শিক্ষার্থীরা সেই পাঠ্য বিদ্যালয়ে এসে উপস্থাপন করতো। কিন্তু এতে করে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা ও বিনোদনের সময় ব্যাহত হচ্ছে। তাই গতানুগতিক এই পদ্ধতি থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সরকার চাইছে, বিদ্যালয়-কেন্দ্রিক লেখাপড়া যেন বিদ্যালয়ে বসেই শেষ করা হয়। এ জন্য প্রয়োজনে সিঙ্গেল শিফট চালু করে সময় আরো বাড়িয়ে দেয়া হবে। যেন বাড়িতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের আর পড়ার চাপ নিতে না হয়। এই সময়টিতে তারা যেন পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে আনন্দে সময় কাটাতে পারে।

akram al hossani primary educationপ্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম আল হোসেন

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম আল হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে বেশি সময় অবস্থান করে পাঠ্য-কেন্দ্রিক লেখাপড়া শ্রেণীকক্ষেই শেষ করবে। এতে করে বাড়িতে গিয়ে বিদ্যালয়ের পাঠের চাপ থাকবে না এবং তারা পরিবারের সঙ্গে আনন্দ করে সময় কাটাতে পারবে। সে জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ে সিঙ্গেল শিফট চালু করা হবে।

তিনি জানান, বর্তমানে বিদ্যালয়গুলোতে অবকাঠামো এবং পর্যাপ্ত শিক্ষক সংকট আছে। সেটি ঠিক হয়ে গেলেই সিঙ্গেল শিফট চালু করা হবে। বিষয়টি নিয়ে গত ৬ অক্টোবর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক হয়। সেখানে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২২ সালে প্রাক-প্রাথমিক থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত একটি নতুন কারিকুলামের কাঠামো তৈরি করা হয়েছে। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) কর্তৃক তৈরি করা এই কাঠামোতে প্রাথমিকের পাঠ্যক্রম পরিমার্জন করা হয়েছে। সেই মোতাবেক এক শিফটের সময় বাড়িয়ে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

sheikh mujib 2020