advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে গত বছর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। এ বছর ভাইরাসটির প্রকোপ আরও বেশি। তবে শেষ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চায় সরকার। পরিস্থিতি অনুকূলে আসলে আগামী নভেম্বর মাসে এসএসসি এবং ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

dipu moni education minister 1শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি

আজ বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) বেলা ১১টায় ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে এই তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম এবং ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদসহ আরও অনেকে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা কয়েকটি পদ্ধতি ঠিক করেছি। যেমন- রচনামূলক বা সৃজনশীল প্রশ্ন বাদ দিয়ে শুধু এমসিকিউর মাধ্যমে পরীক্ষা নেওয়া। পরীক্ষার মোট নম্বর কমিয়ে নেওয়া, এক্ষেত্রে প্রতি বিষয়ের দুই পত্র একীভূত হতে পারে। তবে সবকিছু নির্ভর করছে করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতির ওপর।

ssc exam 1

যদি কোনোভাবে পরিস্থিতির উন্নতি না হয় তাহলে বিকল্প পরিকল্পনা হলো- এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষার ক্ষেত্রে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফলের ৫০ শতাংশ এবং অ্যাসাইনমেন্টের ওপর বাকি ৫০ শতাংশ মূল্যায়নের মাধ্যমে ফল প্রকাশ। একইভাবে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ক্ষেত্রে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফলের ২৫ শতাংশ, এসএসসি বা দাখিল পরীক্ষার ৫০ শতাংশ এবং অ্যাসাইনমেন্টের ওপর বাকি ২৫ শতাংশ মূল্যায়নের মাধ্যমে ফল প্রকাশ।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ বন্ধ ঘোষণা করা হয় দেশের সকল প্রকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তারপর থেকে একের পর এক এই ছুটি বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ ঘোষণায় এই ছুটি গিয়ে পৌঁছেছে ৩১ জুলাই পর্যন্ত। বর্তমানে সংক্রমণের যে পরিস্থিতি তাতে এই তারিখেও খোলার সম্ভাবনা খুব একটা দেখা যাচ্ছে না।