advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি যেসব বাংলাদেশি ইতালিতে গেছেন তাদের বেশ কয়েকজনের করোনা শনাক্ত হওয়ার প্রেক্ষাপটে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ইতালি সরকার। তবে সে নিষেধাজ্ঞার সময় কমিয়ে এনেছে দেশটির সরকার। ফলে আগামী ১ আগস্ট থেকেই বাংলাদেশিরা ইতালি যেতে পারবেন।

bd biman airlineবাংলাদেশ বিমান

ইতালি সরকার গতকাল বুধবার একটি নোটিশ টু এয়ারমেন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়, যারা বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশে ১৪ দিন অবস্থান করেছেন তাদের কেউ আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন না। এই সিদ্ধান্তের কোনো পরিবর্তন না হলে আগামী ১ আগস্ট থেকে বাংলাদেশিরা ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন।

ইতালি সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশের জন্য প্রযোজ্য হবে। বাকি দেশগুলো হলো- ব্রাজিল, বসনিয়া হার্জেগোভিনা, আর্মেনিয়া, বাহরাইন, চিলি, কুয়েত, উত্তর মেসিডোনিয়া, মলদোভা, ওমান, পানামা, পেরু ও ডমিনিকান প্রজাতন্ত্র।

bd and italy flagবাংলাদেশ ও ইতালির পতাকা

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এক কূটনীতিক জানান, সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি থাকেন ইতালির ল্যাজিও শহরে। গতকাল বুধবার সেখানে ২০ জনকে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭ জন বাংলাদেশি। তবে তার আগে গত সোমবার শহরটিতে ২৪ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। যার ২০ জনই বাংলাদেশি।

প্রসঙ্গত, ইতালিতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করলে দেশটিতে থাকা বেশ কিছু বাংলাদেশি দেশে আসেন। পরে ইতালির পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হলে তারা দেশটিতে ফিরতে থাকেন। গত ১২ জুন থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত ছয়টি ফ্লাইটে প্রায় ১ হাজার ৬০০ বাংলাদেশি ইতালিতে গেছেন বলে জানা গেছে।

কিন্তু সম্প্রতি বেশ কয়েক জন বাংলাদেশিকে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এর পর বাংলাদেশি ফ্লাইটের ওপর এক সপ্তাহের নিষেধাজ্ঞা দেয় রোম। এর পর কয়েকটি ফ্লাইটে আরো বেশ কিছু বাংলাদেশি করোনাক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। এর পরই দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যমগুলো বাংলাদেশ ও বাংলাদেশিদের নিয়ে নানা নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশ করে। এমনই প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশি প্রবেশে প্রায় তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা দেয় দেশটি। তবে গতকাল সে অবস্থা থেকে সরে আসে ইতালি।

sheikh mujib 2020