advertisement
আপনি পড়ছেন

অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের রাজধানী সিডনিতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের মধ্যে অন্তত ২৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। আর সেটাও শনাক্ত হয়েছে গত ১ সপ্তাহে। আক্রান্তরা বর্তমানে নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন। কাউকেই এখন পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়নি।

omicron 2করোনার ওমিক্রন টেস্ট, ফাইল ছবি

সিডনিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সূত্রে জানা যায়, সেখানে বসবাস করেন প্রায় ৩০ হাজার বাংলাদেশি। সম্প্রতি শহরটিতে করোনার বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ার পর বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও বিনোদন কেন্দ্রে যান প্রবাসী বাংলাদেশিরা। প্রবাসীরা ধারণা করছেন, এ কারণেই তাদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেছে।

প্রবাসীরা বলছেন, বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপলক্ষে খোলা ইভেন্ট গ্রুপে কেউ না কেউ প্রতিদিনই আক্রান্তের খবর পাওয়া যাচ্ছে। আর এসব অনুষ্ঠানে যারা অংশ নিয়েছেন তাদের সবাইকে করোনা পরীক্ষার অনুরোধও জানানো হচ্ছে।

australia omicron surge test increasedঅস্ট্রেলিয়ার সর্বত্র চলছে করোনা টেস্ট

এদিকে, প্রবাসীদের মধ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ায় সেখানকার বাংলাদেশি কমিউনিটিতে ওমিক্রন আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় সেখানকার বেশ কয়েকটি সংগঠন তাদের পূর্ব ঘোষিত অনুষ্ঠান স্থগিত ঘোষণা করেছে বলে জানা গেছে।

অপরদিকে, আজ বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে ৫ হাজার ৭১৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। যা রাজ্যটিতে একদিনে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ শনাক্ত।

রাজ্যেটির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কেরি চ্যান্ট বলেছেন, আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে, নিউ সাউথ ওয়েলসে যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগ ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত। রাজ্যের ৮০ শতাংশ নাগরিক এই মুহূর্তে ঝুঁকির মধ্যে আছেন বলেও জানান তিনি।