advertisement
আপনি দেখছেন

বিয়ের সময় কনেকে সাধ্যমত শাড়ি-গয়না দিয়ে বিদায় জানায় তার পরিবার। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরাও শুভেচ্ছা হিসেবে হরেক রকমের উপহার দিয়ে থাকেন। তবে এবার বিয়ে করলেই সরকারের পক্ষ থেকে ১০ গ্রাম সোনা উপহার হিসেবে পাবেন নববধূরা।

bride hand pic

সম্প্রতি এমনটাই ঘোষণা দিয়েছে ভারতের আসাম রাজ্যের সরকার। অরুন্ধতী স্বর্ণ প্রকল্পের আওতায় আগামী বছরের জানুয়ারি থেকেই নববধূদের এ উপহার দেয়া হবে।

সরকারের পক্ষ থেকে কেন নববধূকে স্বর্ণ উপহার দেয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাবে আসাম রাজ্যের অর্থমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা জানান, বাল্যবিবাহ বন্ধ করতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। এতে সরকারের প্রায় ৮০০ কোটি টাকা খরচ হবে। তবে এ উপহার পাওয়ার ক্ষেত্রে কয়েকটি শর্ত রয়েছে।

শর্তগুলো হলো- বিয়ের সময় নববধূ বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর এবং বরের বয়স কমপক্ষে ২১ বছর হতে হবে। তাদের অবশ্যই রেজিস্ট্রি করতে হবে। কারণ রেজিস্ট্রি ব্যতিত বিয়ের কোন আইনি স্বীকৃতি নেই। পাশাপাশি কনের পরিবারের বার্ষিক আয় পাঁচ লাখের কম হতে হবে। এসব শর্ত পূরণ না হলে অরুন্ধতী প্রকল্প থেকে উপহার পাবেন না নববধূ।

হেমন্ত বিশ্বশর্মা আরো জানান, প্রকল্পের আওতায় নববধূদের যে স্বর্ণ দেয়া হবে, তা তাদের হাতে সরাসরি তুলে দেয়া হবে না। বিয়ের রেজিস্ট্রি করার পর নববধূর ব্যাংক হিসাবে সোনার মূল্য বাবদ ৩০ হাজার টাকা জমা করে দেয়া হবে।

এছাড়া শুধুমাত্র প্রথম বিয়ের ক্ষেত্রে এবং বিয়েটি ১৯৫৪ সালের স্পেশাল ম্যারেজ আইন অনুযায়ী হলেই নববধূকে এ উপহার দেয়া হবে বলে জানান হেমন্ত।

দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যম জানায়, বর্তমানে আসামে প্রতিবছর প্রায় ৩ লাখ বিয়ে হয়। যার মধ্যে শুধু ৫০-৬০ হাজার বিয়েরই রেজিস্ট্রি হয়। তাই রাজ্যটির অর্থমন্ত্রী আশা করেন, এ প্রকল্প চালু হলে রাজ্যে অন্তত আড়াই লাখ বিয়ের রেজিস্ট্রি হবে।