advertisement
আপনি দেখছেন

সাইবেরিয়ার বরফের নিচ থেকে চাপা পড়ে থাকা ১৮ হাজার বছর আগের একটি কুকুর ছানা নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি উদ্ধার হওয়া কুকুরটির মরদেহ নিয়ে ব্যাপক গবেষণার পর দ্বিধা-দ্বন্দ্বে পড়েছেন গবেষকরা। তারা এখনো নিশ্চিত হতে পারছেন না যে, এটি আসলে কুকুর ছানা নাকি ছোট নেকড়ে।

mystery dog

কুকুর ছানার মতো দেখতে প্রাণীটির মৃত্যুর সময় মাত্র দুই মাস বয়স ছিল। এতদিন বরফের নিচে ছিল বলে প্রাণীটির পশম, নাক অক্ষত রয়েছে। তারপরেও ডিএনএ পরীক্ষা করা হয়। এত সব করেও প্রাণীটির প্রজাতি নির্ধারণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এ ঘটনা কুকুর ও নেকড়ের মধ্যকার বিবর্তনের যোগসূত্র তুলে ধরছে বলে তাদের ধারণা। বর্তমানে যে কুকুর পাওয়া যায়, তা হয়তো ওই বিবর্তনেরই ফসল।

সুইডেনের সেন্টার ফর প্যালায়েজেনেটিকসের গবেষক ডেভ স্ট্যানটনের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, পুরুষ জাতীয় এই প্রাণীটির ডিএনএ বিশ্লেষণ করে আমরা ধারণা করছি, এটি এমন এক প্রজাতির প্রাণী, যা থেকে বর্তমান কুকুর ও নেকড়ে এসেছে। এটি থেকে সংগ্রহ করা নানা তথ্য বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। এ গবেষণায় কুকুরের বিবর্তন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানা যাবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

ছানাটির নাম রাখা হয়েছে ডোগোর, রুশ ভাষায় যার অর্থ বন্ধু। এটি গৃহপালিত ছিল কিনা, তা না জানা গেলেও ২০১৭ সালে প্রকাশিত এক গবেষণায় বলা হয়, ২০ হাজার থেকে ৪০ হাজার বছর আগ থেকে কুকুর গৃহপালিত প্রাণী হয়ে উঠে।

sheikh mujib 2020