advertisement
আপনি দেখছেন

পছন্দের একটি বাড়ির মালিক হতে মানুষের যুগের পর যুগ কটে যায়। তাও আবার কঠোর পরিশ্রমের পরই তা সম্ভব হয়। তবে কিছু ভাগ্যবান মানুষ আছেন যারা উত্তরাধিকার সূত্রে বা লটারি জিতে তদনগদ সাফল্য পেয়ে যান। তেমনি একজন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট মিডল্যান্ডের বিলস্টোনের বাসিন্দা জেম্মা নিকলিন (২৩)।

won house to lottery

তবে তিনি উত্তরাধিকার সূত্রে নয়, বরং মাত্র ১৮৩ টাকার লটারি কিনে জিতেছেন প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকার একটি খামার বাড়ি।

জানা যায়, সম্প্রতি দুই ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১৮৩ টাকা) দিয়ে একটি লটারির টিকেট কেনেন জেম্মা। যার পুরস্কার হিসেবে রাখা হয়েছিল পাঁচ লাখ ইউরো মূল্যের একটি খামারা বাড়ি বা ফার্ম হাউজ। বাংলাদেশি মুদ্রায় এই বাড়িটির মূল্য প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা।

শুধু জেম্মাই নয়, দেশটির লুডনোর শ্রপশায়ারের ওই খামার বাড়িটি পুরস্কার হিসেবে পাওয়ার জন্য তার মা-বাবা ও বন্ধুও সেই লটারির টিকেট কিনেছিলেন। তারা বাবা-মা কেনেন ১০টি টিকেট এবং তার বন্ধু কেনেন ৫টি টিকেট। বাড়িটি খুব পছন্দ হওয়া সত্ত্বেও জেম্মা কিনেছিলেন মাত্র দুটি টিকেট। কিন্তু তার ভাগ্যই সবচেয়ে সুপ্রসন্ন। ওই দুই টিকেটের একটিতেই বাজিমাত করেন তিনি।

পুরস্কার জেতার পর জেম্মা জানান, তিনি খুবই উচ্ছ্বাসিত। শিগগিরই তিনি ওই বাড়িতে বসবাস শুরু করবেন। জিনিসপত্র স্থানান্তরের পরিকল্পনা করছেন তিনি।

বাড়িটির মালিক জানান, তিনি খামার বাড়িটি বিক্রি করতে চাচ্ছিলেন। কিন্তু কিছুতেই তা বিক্রি করতে পারছিলেন না। তাই শেষমেষ উপায় না পেয়ে লটারির ব্যবস্থা করেন তিনি। যাতে পুরস্কার হিসেবে রাখা হয় তার খামার বাড়িটি। আর সেই লটারিতেই বাড়িটি জিতে নিলেন জেম্মা।