advertisement
আপনি দেখছেন

বিকেলে বাজারে গিয়েছিলেন এক নারী। সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে এসে দেখেন তার স্বামী মদ্যপ অবস্থায় রান্নাঘরে কিছু একটা রান্না করছেন। ভেবেছিলেন তার জন্যই হয়তো ভালোবেসে কিছু রান্না করছেন স্বামী। কিন্তু কড়াইয়ে উঁকি দিতেই চক্ষু চড়কগাছ ওই নারীর। দেখেন, কড়াইয়ে মানুষের একটি হাত ও আঙ্গুল ভাজছেন তার স্বামী।

arrest symbol

গত সোমবার ভারতের উত্তরপ্রদেশের বিজনরের টিক্কোপুর গ্রামে ঘটে এই অদ্ভুত ঘটনাটি।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়েছে, স্বামীকে মানুষের মাংস রান্না করতে দেখে আতঙ্কে চিৎকার শুরু করেন ওই নারী। একই সঙ্গে স্বামীকে রান্নাঘরে আটকে রেখে প্রতিবেশীদের খবর দেন তিনি। তারপর দৌড়ে যান স্থানীয় থানায়। খবর পেয়ে পুলিশও ঘটনাস্থলে এসে সঞ্জয় (৩২) নামের ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আরসি শর্মা জানান, স্থানীয় শ্মশান থেকে মৃত মানুষের মাংস কেটে তা পলিব্যাগে ভরে বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন ওই ব্যক্তি। তারপর সেগুলো দিয়ে স্ত্রী এবং নিজের জন্য রাতের খাবার তৈরি করছিলেন তিনি। রান্নার সময় তার স্ত্রী সেটি দেখতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ গিয়ে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে এবং ওই মাংস উদ্ধার করে।

এদিকে, স্বামীর এমন কাণ্ডে শ্বশুরবাড়ি আর ফিরে যেতে চাইছেন না ওই নারী। ঘটনাটি জানার পর সবাই চমকে উঠছেন। সঞ্জয়ের মানসিক অবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।