advertisement
আপনি পড়ছেন

সৌদি আরবের উত্তরাঞ্চলের নেফুদ মরুভূমিতে ১ লাখ ২০ হাজার বছর আগের মানুষের পায়ের স্পষ্ট ছাপের সন্ধান পাওয়ার দাবি করেছেন একদল গবেষক। ‘সায়েন্স অ্যাডভান্সেস’ সাময়িকীতে গতকাল বুধবার প্রকাশিত এক গবেষণা নিবন্ধে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

human footstep saudi arabiaমানুছের পায়ের ছাপের ছবি

গবেষকদের ধারণা, আফ্রিকা থেকে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় প্রাচীন মানুষদের ছড়িয়ে পড়ার তথ্য পাওয়া যায়। সৌদি আরবে ২০১৭ সালে যে পায়ের ছাপ পাওয়া গেছে, তা সেইসব মানুষদের চলাচলের নতুন পথ সম্পর্কে নতুন তথ্য পেতে সহায়তা করবে।

প্রাচীন মানুষের পায়ের ছাপ পাওয়া স্থানটির কাছে আলাথার নামে একটি অল্প গভীরের হ্রদ রয়েছে। সেখানে 'হোমো সেপিয়েন্সের (আধুনিক মানবগোষ্ঠীর উত্তরসূরীদের একটি বৈধ প্রজাতি) ছোট্ট একটি দল পানি পান করতো।

human footstep saudi arabia innerমানুছের পায়ের ছাপের ছবি

বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই স্থানটিতে মানুষের চলাচল নির্বিগ্ন করতে উট-মহিষ-হাতির চেয়ে বৃহদাকার প্রাণীর বিচরণ বন্ধ ছিল। এ ধরনের জলাশয় দীর্ঘ যাত্রাপথের নির্দেশক হিসেবে প্রাচীনকাল হতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

এখন পর্যন্ত পাওয়া সকল তথ্য-উপাত্ত ও দৃশ্য বিস্তারিত পুনর্গঠন করে গবেষকদের ধারণা, খোঁজ পাওয়া পায়ের ছাপগুলো বড় স্তন্যপায়ী প্রাণী শিকার করা মানুষের হবে, যারা একই স্থানে খুব বেশি দিন থাকতো না।

ম্যাক্স প্ল্যাংক ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল ইকোলজির জার্মান গবেষক ম্যাথু স্টুয়ার্ট এ বিষয়ে গণমাধ্যমে বিস্তারিত তুলে ধরেছেন। তাদের ধারণা, সৌদিতে এক সময় সবুজ ও আর্দ্র অবস্থা ছিল, যা জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে মরুভূমিতে রূপ নিয়েছে। গত দশকের গবেষকদের এমন দাবিই ঠিক, যা সর্বশেষ পাওয়া সেখানকার পায়ের ছাপের মাধ্যমে স্পষ্ট।