advertisement
আপনি পড়ছেন

পার্কে ঘুরতে গিয়ে যারা ময়লা-আবর্জনা ফেলে আসছেন, তাদের বাসায় সেগুলো আবার ডাকযোগে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করছে কর্তৃপক্ষ। থাইল্যান্ডের ন্যাশনাল পার্কে জনগণ যেন প্রকৃতির সান্নিধ্যে গিয়ে পরিবেশ নষ্ট না করে সেটি স্মরণ করানোর উদ্দেশ্যে এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি।

thailand dust packetসংগ্রহ করা আবর্জনা পার্সেল করে থাইল্যান্ডের পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী ভারায়ুত শিল্পা-আরচার পোস্ট

এ বিষয়ে দেশটির পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী ভারায়ুত শিল্পা-আরচা বিবিসিকে বলেন, ব্যাংককের জনপ্রিয় খাও ইয়াই জাতীয় উদ্যান কর্তৃপক্ষ শিগগিরই এ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে যাচ্ছে। এমনকি যারা আবর্জনা ফেলবে তাদের নাম পুলিশের খাতায় অপরাধীর তালিকায়ও উঠে আসবে।

এক্ষেত্রে এখন থেকে যারা ওই পার্কে ঘুরতে আসবে তাদের সকলের ঠিকানা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। যেন ফেলে যাওয়া আবর্জনা সহজেই ওই ঠিকানায় ফেরত পাঠানো যায়।

এ রকম সংগ্রহ করা আবর্জনা পার্সেল করার জন্য প্রস্তুত করে কিছু ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছেন মন্ত্রী। তিনি সেখানে লেখেন, আপনার ফেলে যাওয়া আবর্জনা আপনার কাছেই ফেরত পাঠানো হবে।

khao yai national park thailandখাও ইয়াই জাতীয় উদ্যানের মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য

পোস্ট করা ছবিটিতে দেখা যায়, খালি প্লাস্টিকের বোতল, ক্যান ও চিপসের মোড়ক পার্সেলের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। সেই পার্সেলে লেখা আছে- 'আপনি এগুলো পার্কে ফেলে রেখে গেছেন।'

প্রসঙ্গত, থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত দুই হাজার বর্গ কিলোমিটার আয়তনের খাও ইয়াই জাতীয় উদ্যানে আবর্জনা ফেলা একটি অপরাধ। এতে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও জরিমানার বিধানও আছে। এটি দেশটির প্রাচীনতম উদ্যান। সেখানে জলপ্রপাত, প্রাণী ছাড়াও মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য রয়েছে, যা দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করে।