advertisement
আপনি দেখছেন

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে সবচেয়ে উত্তম উপায়ের মধ্যে একটি হলো- জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের না হওয়া এবং সারাদিন বাসায় থাকা। যে মানুষগুলো সারাদিন বাসায় থেকে অলস সময় কাটাচ্ছে, তাদের এবার হিরোর মর্যাদা দিলো জার্মানি।

lazy peopleযত বেশি অলস, তত বেশি প্রশংসা

ডয়চে ভেলের খবরে বলা হয়, শনিবার একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে জার্মান সরকার। সেটি অনলাইনে প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই বেশ জনপ্রিয় হতে থাকে। কারণ এটির বিষয়বস্তু। শিরোনাম রাখা হয়েছে, 'করোনাকালীন দিনের আসল হিরো।

ইংরেজিতে এদের বলে 'কাউচ পটেটো'। অর্থাৎ সোফা থেকে উঠতে না চাওয়া অলস ব্যক্তি। সেই ব্যক্তিদেরই বিশেষ হিরোর মর্যাদা দেয়া হয়েছে এই বিজ্ঞাপনে।

দেড় মিনিটের ভিডিও বিজ্ঞাপনটির শুরুতে এক বৃদ্ধকে দেখানো হয়। তিনি তার ফেলে আসা যৌবনের একটি বিশেষ বছর (২০২০) সালের কথা স্মরণ করেন। বলেন, আমার তখন বাইশ বছর বয়স ছিল। সদ্য প্রকৌশলবিদ্যা পড়া শুরু করেছি। এই বয়সে আমাদের হেসে-খেলে ঘুরে বেড়ানোর কথা ছিল। কিন্তু আমরা সম্মুখীন হই করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় দফার আঘাতের।

lazy people1যত বেশি অলস, তত বেশি প্রশংসা

'ওই সময়টাতে আমাদের প্রজন্মের হাতেই ছিল দেশের ভাগ্য নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা। তাই দায়িত্ব বুঝে নিয়ে কাজ শুরু করলাম এবং আমরা দিনরাত লক্ষ্যে অনড় থেকেছি। এক জায়গা থেকে নড়িনি এবং কিছুই করিনি। বাসার সোফায় এক জায়গায় বসে ছিলাম। এভাবে আমরা প্রথম সারি থেকে করোনার বিরুদ্ধে লড়ে গিয়েছি।'

সচেতনতামূলক এই মজার বিজ্ঞাপনটির স্লোগান হলো- লড়াইয়ের ময়দান যখন সোফা, তখন ধৈর্য্যই লড়াইয়ের অস্ত্র'। এর মধ্য দিয়ে তরুণ প্রজন্মকে বাইরে বের না হওয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে সরকার বার্তা দিচ্ছে যে, বাসায় থাকলেও হিরো হওয়া যায়।