advertisement
আপনি দেখছেন

পৃথিবীর বুকে ইসলামের আগমণ মানবতার কল্যাণের জন্য। তাইতো সুখে-দুঃখে মানুষের পাশে দাঁড়ানো, অন্যের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়াকে সবচেয়ে বড় ইবাদত বলে উল্লেখ করেছেন ইসলামের নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)। অন্যের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার মর্যদা সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে বলা হয়েছে, ‘যারা নিজের সম্পদ দিনে বা রাতে প্রকাশ্যে অথবা গোপনে আল্লাহর পথে খরচ করে তাদের পুরস্কার তাদের প্রতিপালকের কাছে আছে। তাদের কোন ভয় নেই। তাদের কোন চিন্তাও নেই।’ সুরা আল বাকারা, আয়াত ২৭৪।

zakat heroimage1910x1000 768x432

হাদিসে রাসুলে বলা হয়েছে, ‘যে ব্যক্তি বিধবা, গরিব, অভাবী ও অসহায়কে সাহায্য করতে গিয়ে আল্লাহর ইবাদতে সময় দিতে পারে না, সে রাত জেগে নফল সালাত আদায় ও দিনভর রোজার রাখার সমান সওয়াব পাবে।’ বুখারি।

পবিত্র কোরআন এবং সুন্নাহয় বলা এমনসব লোভনীয় প্রতিদানের আশায় মহামারি করোনার করুণ সময়ে অনেকেই মানুষের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন। শুধু আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে সামর্থ্যানুযায়ী নিজের কষ্টার্জিত টাকা তুলে দিচ্ছেন গরীব-দুঃখী-অসহায় মানুষের হাতে। এটি নিঃসন্দেহে প্রশংসার কাজ। অনেক বড় সওয়াবের কাজ।

দুঃখজনক হলেও সত্য, অনেকের আচরণই লোক দেখানে দানকারীরর মত হয়ে যাচ্ছে। দেখা যায়, একশ পরিবারকে সাহায্য করে সবাই ফটোশুট করছে। ফটো তোলা শেষে সে ছবি ছড়িয়ে পড়ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বহু প্রশংসনীয় কমেন্ট ও লাইক পড়ছে সে ছবিতে। এতে করে যারা সাহয্যপ্রার্থী তাদের করুণ মুখখানি ছড়িয়ে পড়ছে দেশ-বিদেশে সবার কাছে। এসব দেখে কষ্ট পান দান নিতে আসা অসহায় মানুষজন। অজান্তেই তাদের ভেতর থেকে বেরিয়ে আসে এক বুক দীর্ঘশ্বাস।

পবিত্র কোরআনে আল্লাহ বলেন, ‘হে মুমিনগণ, দানের কথা প্রচার করো না এবং দান নিতে আসা মানুষজনকে কষ্ট দিয়ে তোমাদের দান ওই ব্যক্তির মত ব্যর্থ করো না, যে নিজের ধন সম্পদ কেবল লোক দেখানোর জন্যই ব্যয় করে। সুরা আল বাকারা, আয়াত ২৬৪।

প্রকাশ্য দানের চেয়ে গোপন দান আল্লাহ পছন্দ করেন বেশি। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা যদি প্রকাশ্যে দান কর তবে তা ভাল। আর যদি গোপনে দান কর তাহলে আরো ভাল। সুরা আল বাকারা, আয়াত ২৭১।

গোপন দানের মর্যাদা বর্ণনা করতে গিয়ে রাসুল (সা.) বলেন, ‘কিয়ামতের দিন যখন আরশের ছায়া ছাড়া কোন ছায়া থাকবে না তখন আল্লাহ তায়ালা সাত শ্রেণির মানুষকে তাঁর আরশের নীচে আশ্রয় দেবেন। তাদের মধ্যে একজন হল ওই ব্যক্তি, যে এতো গোপনে দান করত যে, ডান হাতে দান করত বাম হাত টেরও পেত না। বুখারি।

অন্য হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, গোপন দান বড়ই বরকতময়। গোপন দানে আল্লাহর অভিমান কমে যায়। তাবরানি।

তাই আসুন! আমরা লোক দেখানো দান না করে প্রভুকে সন্তুষ্ট করার জন্য দান করি। আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাওফিক দিন। আমিন।