advertisement
আপনি দেখছেন

ডিজিটালাইজেশনের এই যুগেও বিয়ের রেজিস্ট্রেশন এবং অন্যান্য তথ্য শুধু কাগজে কলমেই সীমাবদ্ধ। অনলাইন কোনো ডাটাবেজ না থাকার দরুন বিয়ে নিয়ে প্রতারণার ঘটনা দিনকে দিন বেড়েই চলছে। এক বন্ধন না ছিঁড়ে আরেক বন্ধনে জড়ানোর মতো ঘটনা ঘটছে।

ahmadullahশায়খ আহমাদুল্লাহ

ইসলামিক স্কলার শায়খ আহমাদুল্লাহ বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। ডিভোর্স ছাড়াই নারীর বিয়ের ব্যাপারে শরিয়তের বিধান কী, তা জানার জন্য গণমাধ্যকর্মীরা প্রশ্ন করলে বিস্তারিত জবাব দেন তিনি।

তিনি বলেন, ইসলামী শরিয়ত মতে, প্রথম স্বামীর সঙ্গে ইসলামী পদ্ধতিতে ছাড়াছাড়ি বা ডিভোর্স না হলে কোনো নারী স্বামী গ্রহণ করতে পারবেন না। যদি কোনা নারী ডিভোর্স ছাড়াই দ্বিতীয় কোনো পুরুষের সঙ্গে সামাজিক নিয়ম মেনে ইসলামী পদ্ধতিতে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন, তাহলেও এ বিয়ে ইসলামের দৃষ্টিতে স্বীকৃত হবে না।

শায়খ আহমাদুল্লাহ বলেন, পূর্বের স্বামীর সঙ্গে যদি বাস্তবিকই ডিভোর্স না হয়ে থাকে তাহলে প্রথমে ডিভোর্স নিতে হবে। এরপর ডিভোর্স পরবর্তী ইদ্দত পালন, তথা তিন মাস অপেক্ষা করতে হবে। এ পক্রিয়া অবলম্বন ছাড়া বিয়ে শুদ্ধ হবে না।

sheikh mujib 2020