advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দিক দিয়ে এখন পর্যন্ত যে কয়টা গবেষণা আশার আলো দেখাচ্ছে, তার মধ্যে যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষকদের তৈরি ভ্যাকসিন অন্যতম। কিন্তু সেটি দিয়ে আক্রান্ত রোগীদের গুরুতর অসুস্থতা হয়তো ঠেকানো যাবে, তবে পুরোপুরি সুরক্ষা দেয়া সম্ভব হবে না বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্যের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের প্রধান কেট বিংহ্যাম।

corona vaccine

দ্য গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আগামী বছরের শুরুতেই অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির তৈরি ভ্যাকসিন হাতে পাওয়ার আশা করা হচ্ছে। করোনা মহামারি ঠেকাতে এই ভ্যাকসিনই সবচেয়ে বড় অস্ত্র হবে বলে মনে করি। তাছাড়া এই ভ্যাকসিনটির দিকেই সবাই তাকিয়ে আছে। কারণ অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ভ্যাকসিনটিই সবচেয়ে প্রতিশ্রুতিশীল।

তবে এই ভ্যাকসিন দিয়ে নতুন করোনাভাইরাস পুরোপুরি মোকাবেলা করা যাবে না জানিয়ে কেট বিংহ্যাম বলেন, অক্সফোর্ডের তৈরি প্রথম ভ্যাকসিনটি করোনা রোগের উপসর্গ সারাতে সাহায্য করবে। এতে করে হয়তো আক্রান্ত রোগীদের গুরুতর অসুস্থ হওয়া কমতে পারে। তবে এটি দিয়ে মানুষকে করোনাভাইরাসের কবল থেকে পুরোপুরি সুরক্ষা দেয়া সম্ভব হবে না।

uk cv 19 vaccine

অন্যদিকে, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন তৈরি প্রক্রিয়ার প্রধান বিজ্ঞানী অধ্যাপক সারাহ গিলবার্ট বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই উন্নত ভ্যাকসিন তৈরি করা যাবে বলে আশা করছি। আর এটি মানুষকে ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে রক্ষা করবে।

যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত মরণব্যাধী এ ভাইরাসটিতে ৩ লাখ ১৩ হাজার ৪৮৩ জন মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন। এদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৩ হাজার ৯০৬ জন।

sheikh mujib 2020