advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের কোনো নির্দিষ্ট চিকিৎসাব্যবস্থা এখন পর্যন্ত বের করা সম্ভব হয়নি। ভ্যাকসিন আবিষ্কারেও চলছে জোর গবেষণা। সেইসঙ্গে গবেষকরা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন কোনো উপায় বা ওষুধের ব্যবহারে মানুষের নাক ও মুখ দিয়ে ভাইরাসটি ছড়ানো বন্ধ করা যায় কি না। এর মাঝেই আশার আলো নিয়ে এলো সুইডেনের এক ফার্মা। তাদের দাবি, ফার্মটির উদ্ভাবিত একটি মাউথ স্প্রের মাধ্যমে মুখ দিয়ে করোনাভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া আটকানো সম্ভব।

coldzyme mouth spray01কোল্ডজাইম মাউথ স্প্রে

টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাতে জানা যায়, সুইডিশ ফার্ম এনজাইমেটিকা এই মাউথ স্প্রেটি বানিয়েছে। যা মুখে স্প্রে করার পর করোনাভাইরাস মারা যায়। ফলে সংক্রমিত ব্যক্তির মুখ দিয়ে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়তে পারে না।

ফার্মের গবেষকরা বলছেন, কোল্ডজাইম নামে এই স্প্রে মুখে দেয়ার পর সেখানে থাকা করোনাভাইরাসের ৯৮ দশমিক ৩ শতাংশ মারা যায়। যা এর আগে অন্য কোনো পদ্ধতিতে সেটা সম্ভব হয়নি। 

জানা যায়, গবেষণার জন্য তারা বিভিন্ন টেস্ট করে দেখেছেন। কোল্ডজাইমে যে ওষুধগুলো ব্যবহৃত হয় তা সাধারণ ঠাণ্ডার ওষুধ। কিন্তু সেই ওষুধগুলোই মুখে থাকা করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে বেশ ভালো কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে।

pandemic symbolic picture2করোনাভাইরাসের প্রতীকী ছবি

সুইডিশ এই ফার্মের গবেষকরা বলছেন, ল্যাবের বিভিন্ন টেস্টে দেখা গেছে, করোনাভাইরাসের ওপর কোল্ডজাইম স্প্রে করার ২০ মিনিটের মধ্যে গড়ে ৯৮ দশমিক ৩ শতাংশ ভাইরাস মারা যায়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনাভাইরাসে মৃদুভাবে আক্রান্ত রোগীদের থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়া থামাতে এই ওষুধ বেশ কার্যকর প্রমাণিত হতে পারে। মানুষ যদি এই স্প্রে মুখ ও নাকে ব্যবহার করা শুরু করে তাহলে ফুসফুস ও শ্বাসনালীতে প্রবেশের আগেই ভাইরাসটি মারা যাবে। যা এই মহামারিতে সবচেয়ে কার্যকর পন্থা হতে পারে। তবে এ বিষয়ে আরো গবেষণার প্রয়োজন আছে বলে মনে করছেন তারা।

sheikh mujib 2020