advertisement
আপনি দেখছেন

বুকে ব্যথা হলেই অনেকে আঁতকে উঠেন- হার্টের সমস্যা নয় তো? এর কারণ হলো হার্টের ব্যথা এবং অন্য কোন কারণে বুকে যে ব্যথা হওয়া- এ দুটোর মাঝে অনেকেই পার্থক্য করতে পারেন না। তাই বুকের ব্যথাকেই বেশিরভাগ মানুষ হার্টের ব্যথা মনে করে বিচলিত হয়ে পড়েন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হূদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক এস এম মোস্তফা জামান বলেন, বুকের ব্যথা মানেই হার্টের ব্যথা নয়।

healthy heart check up

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকেও বুকে ব্যথা হয়ে থাকে। হার্টের ব্যথার নির্দিষ্ট কিছু উপসর্গ আছে।

হার্টের ব্যথার কয়েকটি সাধারণ লক্ষণ

প্রফেসর এস এম মোস্তফা জামান বলেন, হার্টের ব্যথার কিছু সাধারণ লক্ষণ আছে যা দেখে আমরা বুঝতে পারি রোগী ধীরে ধীরে হার্ট অ্যাটাকের দিকে এগোচ্ছে। কারো মাঝে যদি এ ধরনের উপসর্গ প্রকাশ পায়, অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে হার্ট চেকআপ করিয়ে নেওয়া ভালো। হার্টের ব্যথার সাধারণ লক্ষণগুলো হলো-

১. মনে হবে বুকের উপর ভারী কিছু চেপে আছে।

২. বুকের মাঝ বরাবর চাপ অনুভব হতে থাকবে।

৩. হাঁটলে কিংবা সিঁড়ি ভাঙলে অথবা সাধারণ কোনো পরিশ্রমের কাজ করলে এই চেপে ধরা ব্যথা বেশি মনে হবে।

৪. অনেকক্ষেত্রে ব্যথা শুধু বুকেই সীমাবদ্ধ থাকে না, বুক থেকে ঘাড় বা পিঠের দিকে চলে যেতে পারে, এমনকি চোয়ালেও ব্যথা হতে পারে। ডাক্তারি ভাষায় একে বলে অ্যানজাইনাল পেইন।

৫. যখন ব্যথা উঠবে তখন শরীরে প্রচণ্ড ঘাম হবে, শ্বাসকষ্ট হতে পারে এবং মুখের রঙ ফ্যাকাশে কিংবা কালচে হয়ে যাবে।

about heart attacks

৬. ধীরে ধীরে রোগীর হাত পা শীতল হয়ে আসবে।

৭. ব্যথা ২০ থেকে ২৫ মিনিটের মত স্থায়ী হতে পারে।

ব্যথা শুরু হলে কী করবেন

১. যদি রোগীর হার্ট অ্যাটাক হয়ে থাকে তাহলে দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে হৃদরোগের চিকিৎসা হয় এমন হাসপাতালে নিয়ে আসুন। প্রথম দুই ঘণ্টার মধ্যে রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে পারলে অল্প সময়ের মধ্যে রোগী সুস্থ হয়ে ওঠে।

৩. অনেকেই হার্টের ব্যথাকে গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা বলে এড়িয়ে যান। শতকরা ৮০ ভাগ বুকের ব্যথার কারণ গ্যাস্ট্রিক, আর ২০ ভাগ হার্টের ব্যথা। তাই গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা বলে হার্টের ব্যথাকে এড়িয়ে গিয়ে নিজেকে ঝুঁকিতে ফেলবেন না।

sheikh mujib 2020