advertisement
আপনি দেখছেন

স্থুলতা বা মোট শরীর এখন অনেকের জীবনেই একটি বড় সমস্যা। এতে চলাফেরায় যেমন সমস্যায় পড়তে হয়, তেমনি শরীরে বাসা বাঁধে নানা ধরনের রোগ। তাই শরীরের বাড়তি ওজন কমাতে মানুষ কত কিছুই না করে। কেউ দিনে একবেলা খাবার খায়, কেউবা খুবই অল্প পরিমাণে আহার গ্রহণ করে। এতে প্রয়োজনীয় পুষ্টি না পেয়ে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে।

weight loseসুস্থ থাকতে কমিয়ে ফেলুন শরীরের বাড়তি ওজন- প্রতীকী ছবি

মানুষের শরীরের ওজন বৃদ্ধির জন্য দায়ী অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেট ও তেল জাতীয় খাবার। তাই ওজন কমাতে ও শরীর ফিট রাখতে এসব খাবার পরিহার করে নিয়মিত শাক-সবজি ও ফলমূল খাওয়া উচিত। বিশেষ করে, প্রতিদিন খাবার পাতে রাখা উচিত শাক-সবজি। এতে শরীরের ওজন যেমন ঠিক থাকে, তেমনি পাওয়া যায় প্রয়োজনীয় পুষ্টিও।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, শরীরের ওজন কমাতে কী কী শাক-সবজি প্রতিদিন খাবার পাতে রাখা উচিত।

vegitable and fruitsসবুজ শাক-সবজি

পালংশাক: শরীরের ওজন কমাতে সবুজ শাক অত্যন্ত উপকারী। কারণ শাকে ক্যালোরির পরিমাণ খুবই কম থাকে। পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, আয়রন ও পটাসিয়াম পাওয়া যায়। যা ওজন কমিয়ে শরীরকে ফিট রাখে। সবুজ শাকের মধ্যে সবচেয়ে উপকারী হলো পালংশাক। পুষ্টিগুণে ভরপুর এই শাকটি প্রতিদিন খাবার পাতে রাখলে শরীর সুস্থ থাকে। এটি মানুষের ওজন কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি এটি ক্যান্সার, এবং হৃদরোগ ও টাইপ-২ ডায়াবেটিস প্রতিরোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ক্যাপসিকাম: এই রঙিন সবজিটি অন্য যেকোনো খাবারের সঙ্গে রান্না করে খাওয়া যায়। সালাদ হিসেবেও অনেকে এটি খেয়ে থাকেন। এতে রয়েছে ডায়েটারি ফাইবার, ফোলেট, ভিটামিন সি, ই ও বি৬। এই সবজিটিতে পানির পরিমাণও বেশি থাকে। এসব পুষ্টিগুণ মানুষের ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং শরীরের মেটাবলিজমের হার বাড়ায়। তাই ওজন কমাতে প্রতিদিন খাবার পাতে এই সবজিটি রাখা উচিত।

palong sakপালংশাক

ব্রকোলি: এই সবুজ সবজিটি দেখতে অনেকটা ফুলকপির মতো। তবে অনেক মানুষই এটি খেতে পছন্দ করেন না। কিন্তু ব্রকোলিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, কে, ক্যালসিয়াম ও আয়রন। এতে ফাইবারও রয়েছে অধিক পরিমাণে। কিন্তু ক্যালরির পরিমাণ খুবই কম। শরীরের ওজন কমাতে অত্যন্ত উপকারী এ সবজিটিকে নিউট্রিয়েন্ট পাওয়ারহাউস বলা যেতে পারে।

টমেটো: টমেটো শীতকালীন সবজি হলেও এখন সারা বছরই এটি পাওয়া যায়। রান্না বা সালাদ দুভাবেই এটি খাওয়া যায়। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লাইকোপিন। যা ওজন কমানোর পাশাপাশি বিভিন্ন ক্রনিক অসুখ থেকেও মানুষকে রক্ষা করে। পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এটি খেতেও খুবই সুস্বাদু।

brocoli imageব্রকোলি

মিষ্টি আলু: সাধারণ গোল আলুতে কার্বোহাইড্রেট থাকলেও মিষ্টি আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। এতে কমপ্লেক্স কার্বও রয়েছে। যা মানুষের ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। আর প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকায় এটি ওজন কমাতেও সাহায্য করে। তাই গোল আলুর পরিবর্তে স্ন্যাক হিসেবে এটি খাওয়া যায়।

sheikh mujib 2020