advertisement
আপনি দেখছেন

করোনায় সংক্রমণের ৬ মাস পরেও দুর্বলতা ও ঘুমের সমস্যাসহ নানা ধরনের উপসর্গ দেখা যেতে পারে। এমনটা উঠে এসেছে গত শুক্রবার প্রকাশিত বিখ্যাত চিকিৎসা সাময়িকী দ্য ল্যানসেটের এক গবেষণা প্রতিবেদনে।

stay safe during coronavirus temp checkকরোনা পরীক্ষার নতুন যন্ত্র

সিএনএন জানায়, করোনার উৎপত্তিস্থল চীনের উহানের ১ হাজার ৭০০ জন করোনা রোগীর ওপর গবেষণাটি পরিচালনা করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বড়ি ফেরার ৬ মাস পরেও ৭৬ শতাংশ রোগীর মধ্যে উপসর্গ মিলেছে।

চীনা গবেষকরা বলছেন, সুস্থ হওয়া রোগীদের শরীরে করোনার প্রভাব দীর্ঘমেয়াদি হয়ে থাকে। এর মধ্যে ৬৩ থেকে ২৬ শতাংশ রোগীর দুর্বলতা ও ঘুমের সমস্যা দেখা যায়।

stay safe during coronavirus temp checkকরোনা পরীক্ষার নতুন যন্ত্র

এ ছাড়া দীর্ঘ মেয়াদে মানসিক জটিলতা ও অস্বস্তি দেখা দিতে পারে। উদ্বিগ্নতা ও হতাশা মিলেছে ২৩ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে। যারা বেশি মাত্রায় অসুস্থ ছিলেন এবং ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তাদের ক্ষেত্রে এসব উপসর্গ বেশি দেখা যায়।

করোনার প্রভাবে হাঁপিয়ে যাওয়া, কাশি, হাড়ের জোড়া ও বুকে ব্যথা হতে পারে দীর্ঘমেয়াদি। মনোযোগে ঘাটতি, বিষণ্নতা ও মাথাব্যথাও দেখা দিতে পারে। এ ছাড়া আরো কিছু সমস্যা দেখা যেতে যারে, যা ধীরে ধীরে প্রকাশ পায়।

corona virus 1করোনার নতুন স্ট্রেইন

এই গবেষক দলের নেতৃত্ব দেয়া চীন-জাপান ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের ড. বিস কাও বলেন, নতুন ধরনের রোগ করোনার দীর্ঘমেয়াদি প্রভাবের বিষয়টি তারা বুঝতে শুরু করেছেন। বৃহৎ জনগোষ্ঠীর মাঝে এ ধরনের আরো গবেষণা হলে বিস্তর বুঝা যাবে।