advertisement
আপনি দেখছেন

জিন থেরাপির মাধ্যমে দীর্ঘ ৪০ বছর পর অন্ধ হয়ে যাওয়া এক ব্যক্তির দৃষ্টিশক্তি ফেরাতে সক্ষম হয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি সুইজারল্যান্ডের গবেষকরা এই সফলতা অর্জন করেন। তারা অপটোজেনেটিক থেরাপি ও বিশেষ চশমা ব্যবহার করে ওই ব্যক্তির দৃষ্টিশক্তি ফেরাতে সক্ষম হন।

gene therapy eye sightজিন থেরাপি: ৪০ বছর পর ফিরলো দৃষ্টিশক্তি

গবেষকরা দাবি করছেন, মানুষের ওপর এ ধরনের থেরাপি সফলভাবে প্রয়োগের ঘটনা এটাই প্রথম। চোখের রেটিনা কোষকে পুনঃপ্রোগ্রাম করতে তারা এক ধরনের জিন থেরাপি ব্যবহার করেছেন বলে জানিয়েছন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ৪০ বছর ধরে রেটিনাইটিস পিগমেনটোসা নামে স্নায়ুজনিত চক্ষুরোগে ভুগছিলেন ৫৮ বছর বয়সী ওই অন্ধ ব্যক্তি। এতে চোখের ফটোরিসেপ্টরগুলোর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যেতে পারে আক্রান্ত ব্যক্তি।

বিখ্যাত চিকিৎসা বিষয়ক সাময়িকী নেচার মেডিসিনে এ সংক্রান্ত গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। গবেষকরা দাবি করছেন, কোনো রোগী এ থেরাপি ব্যবহারে চশমা পরা অবস্থায় বস্তু শনাক্ত, অবস্থান নির্ণয় বা গণনা করতে পারেন। এমনকি ঘরের ব্যবহার্য জিনিসপত্রও শনাক্ত করতে পারেন তিনি।

man get return eye sight 40 yearsদৃষ্টিশক্তি ফিরে পাওয়া ব্যক্তি তার স্ত্রীর সঙ্গে

এ বিষয়ে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের চক্ষুবিজ্ঞানের অধ্যাপক রবার্ট ম্যাকলারেন বলছেন, বিজ্ঞানীরা জিন থেরাপি ব্যবহারের মাধ্যমে আংশিক দৃষ্টিশক্তি ফেরাতে সক্ষম হয়েছেন। এটা উল্লেখযোগ্য একটা মাইলফলক।

তিনি আরো বলেন, এই পদ্ধতি আরো পরিমার্জন করা গেলে ভবিষ্যতে তা রোগীর জন্য অপটোজেনেটিক থেরাপিকে একটি কার্যকর বিকল্প হিসেবে পরিণত করবে বলে আশা করা যায়।