advertisement
আপনি দেখছেন

করোনা মহামারিতে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বিপর্যস্ত রয়েছে গোটা বিশ্ব। এই পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসার নাম তো নেই-ই, উল্টো নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট (ধরন) ছড়াচ্ছে। এ যাবতকালের সবচেয়ে শক্তিশালী ও দ্রুত ছড়ানো করোনা ভ্যারিয়েন্ট হলো ডেল্টা বা ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট।

corona lambda strainকরোনার ‘ল্যামডা স্ট্রেইন’, প্রতীকী ছবি

এবার তার চেয়ে আরো ভয়ংকর ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে মালয়েশিয়াসহ প্রায় ৩০টি দেশে, নাম ‘ল্যামডা স্ট্রেইন’। বিষয়টি নিশ্চিত করে মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এটি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের চেয়ে অনেক বেশি ভয়ংকর।

এক টুইটবার্তায় দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, লাতিন আমেরিকার দেশ পেরুতে উৎপত্তি হয়েছে বা প্রথম শনাক্ত হয়েছে ল্যামডা স্ট্রেইন। ২০২০ সালের ডিসেম্বরের শুরুর দিকে এর নমুনা প্রথম পরীক্ষা করা হয়। দেশটি করোনায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ হারের রেকর্ড করেছে এরইমধ্যে।

corona lambda strain 1করোনার ‘ল্যামডা স্ট্রেইন’, প্রতীকী ছবি

পেরু থেকে ছড়ানো ল্যামডা স্ট্রেইনের সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোতে। এসব দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্তদের ৮০ শতাংশই এই ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত হয়েছেন। এমনকি যুক্তরাজ্যেও কমপক্ষে ৬ জন রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানা গেছে।

মালয়েশীয় গণমাধ্যম দ্য স্টার জানায়, মাত্র গত ৪ সপ্তাহে কমপক্ষে ৩০টি দেশে ছড়িয়েছে করোনার ল্যামডা স্ট্রেইন। ফলে এত অল্প সময়ে এত দ্রুত এসব দেশে ছড়িয়ে পড়া নিয়ে নতুন শঙ্কা দেখা দিয়েছে বিশ্বব্যাপী। এর আগে ভারতে প্রথম শনাক্ত হওয়া ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়ার কথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, যেটি অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টগুলোর চেয়ে দ্রুত ছড়ায় এবং ভয়ংকর।