advertisement
আপনি দেখছেন

৫০টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের বিষয়ে পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রথম দফায় এই পোর্টালগুলোর তালিকা প্রকাশ করা হবে। আসন্ন কোরবানির ঈদের পর তারা নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে পারবে।

info minister hasan mahmud dureing cতথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ- ফাইল ছবি

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোকে নিবন্ধন দেওয়ার বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে তারা বলে আসছেন। এ জন্য দেশের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে সবগুলো পোর্টালে কার্যক্রম তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিলো। গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তদন্ত শেষে অনেকগুলো অনলাইন পোর্টালের বিষয়ে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। যেখানে প্রথম ধাপে ৫০টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের বিষয়ে পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার রাতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া পোর্টালগুলোর তালিকা প্রকাশ করা হবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এই ৫০টি অনলাইন পোর্টাল পবিত্র ঈদুল আজহার পর নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে পারবে।

info minister hasan mahmud 30 07 2020সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

তিনি আরো বলেন, গোয়েন্দা সংস্থাগুলো অনেকগুলো অনলাইন নিউজ পোর্টালের বিষয়ে নেগেটিভ প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। এসব পোর্টালগুলো নিবন্ধন করতে পারবে না। তাদের এ তথ্য জানিয়ে দেওয়া হবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, এখন অবাধ তথ্য প্রবাহের যুগ। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশও ডিজিটাল হয়েছে। দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়িয়ে গেছে। দেশের জনগণ অনলাইনের মাধ্যমে সংবাদ পড়ছে। কিন্তু কিছু কিছু অনলাইন নিউজ পোর্টাল সবার আগে সংবাদ পরিবেশনের প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে অনেক সময় ভুল সংবাদ প্রকাশ করছে। অনেক সময় অসত্য সংবাদও প্রকাশিত হচ্ছে। পাশাপাশি কিছু কিছু পোর্টাল উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে গুজব ছড়াচ্ছে। লিপ্ত হচ্ছে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে। সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার পাশাপাশি লিপ্ত হচ্ছে মানুষের চরিত্র হননে।

এসব বিষয় মাথায় রেখেই গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তদন্ত করেছে। যেসব অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসব কাজ করেছে, তাদের বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তে সেই ধরনেরই প্রতিবেদন এসেছে। গোয়ান্দা সংস্থাগুলোর দেওয়া প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই পোর্টাল নিবন্ধনের কাজ করা হচ্ছে, যোগ করেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি আরো জানান, প্রথম ধাপে প্রকাশিত তালিকায় হয়তো অনেক প্রতিষ্ঠিত অনলাইন পোর্টালেরই নাম পাওয়া যাবে না। তার মানে এই নয় যে, তাদের বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো নেগেটিভ প্রতিবেদন দিয়েছে। আসলে অনেক পোর্টালের বিষয়েই এখনো প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি। তাই তাদের নাম প্রথম ধাপে প্রকাশ করা তালিকায় নাও থাকতে পারে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। তাদের বিষয়ে প্রতিবেদন আসলেই, আবার তালিকা প্রকাশ করা হবে। তখন তারাও নিবন্ধন করতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, প্রথম ধাপের তালিকায় কারো নাম না আসলে হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। কারণ দেশে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার অনলাইন নিউজ পোর্টাল রয়েছে। আর প্রথম ধাপের তালিকায় প্রকাশ করা হচ্ছে মাত্র ৫০টি নাম। বাকি অনলাইনগুলোর তালিকা প্রকাশ করতে কয়েক মাস সময় লাগবে।

গোয়েন্দা তদন্তের ক্ষেত্রে কোনো সুপারিশ বা রাজনৈতিক প্রভাব কাজে লাগেনি দাবি করে তিনি আরো বলেন, যেসব পোর্টালের বিষয়ে নেগেটিভ প্রতিবেদন পাওয়া গেছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাদের পোর্টাল বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। তাই যারা ভুল সংবাদ পরিবেশন করছেন, তারা সেগুলো সংশোধন করে নিন।

sheikh mujib 2020