advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্ব অর্থনীতিতে পড়েছে অত্যন্ত বাজে প্রভাব। এই প্রভাব থেকে মুক্ত নয় আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি বাজারও। এর মধ্যেই নতুন আইফোন বাজারে নিয়ে এলো অ্যাপল। এটি হলো আইফোন এসই-এর নতুন সংস্করণ। নতুন আইফোনের মডেলের নামটিও তাই আগেরটিই- আইফোন এসই।

apple launches new iphone se

তিনটি ভিন্ন রঙ ও কনফিগারেশনে আইফোনের নতুন মডেলটি পাওয়া যাবে এবং এর দাম শুরু হবে ৩৯৯ ডলার থেকে। ফোনটি কবে নাগাদ বাংলাদেশের বাজারে আসবে, আপাতত তা বলা যাচ্ছে না। তবে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার বাজারে ফোনটি পাওয়া যাবে এপ্রিলের ২৪ তারিখ থেকে।

গত কয়েক মাস ধরেই নতুন আইফোন নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো। নতুন আইফোনটি আইফোন নাইন হতে পারে বলে মনে করছিলেন বাজার বিশ্লেষকরা। কিন্তু সবাইকে চমকে দিয়ে ‘কম মূল্যের’ আইফোন হিসেবে আইফোন এসই-এর নতুন সংস্করণ নিয়ে এলো অ্যাপল।

আইফোন এসই-এর নতুন সংস্করণটিতে মূলত আইফোন এলিভেনের মৌলিক কনফিগারেশনটাই রাখা হয়েছে বলে জানাচ্ছে বেশ কয়েকটি প্রযুক্তিপণ্য বিশ্লেষণ বিষয়ক ওয়েবসাইট। এটির ক্রয়াদেশ দেওয়া যাবে ১৭ এপ্রিল থেকে।

আইফোন এসই বাজারে আসবে তিনটি রঙে- সাদা, কালো ও লাল। ৬৪ জিবি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন মডেলের দাম পড়বে ৩৯৯ ডলার, ১২৮ জিবির দাম ৪৪৯ ডলার ও ২৫৬ জিবির দাম পড়বে ৫৪৯ ডলার করে। যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়াতে দাম শুরু হবে ৪১৯ পাউন্ড ও ৭৪৯ অস্ট্রেলিয়ান ডলার থেকে।

এই ফোনটির জন্য অ্যাপেলের লক্ষ্য হলো এমন ক্রেতা যারা ৮০০ ডলার দিয়ে আইফোন এলিভেন কিনতে রাজি নন বা যারা একটু ছোট আকৃতির ফোন ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। আইফোনের এই মডেলটির স্ক্রিনের আকৃতি হলো ৪.৭ ইঞ্চি।

প্রতিবার নতুন আইফোনের ঘোষণা দেওয়ার জন্য বিশাল আয়োজন করে অ্যাপল। কিন্তু এবার সংবাদ মাধ্যমে একটি করে প্রেসরিলিজ পাঠিয়েই নতুন পণ্যটি রিলিজ করতে যাচ্ছে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এই প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যাপলের এমন উদ্যোগর পেছনে প্রভাব ছিলো করোনাভাইরাসের। এই মারণ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ২০ লাখ লোক আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন এক লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষ।

নতুন আইফোনটিতে আইফোন এলিভেনের যে ফিচারগুলো আছে, সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো এ-থার্টিন বায়োনিক প্রসেসর, কিউআই ওয়্যারলেস চার্জিং, ট্রু টোন ডিসপ্লে। এ ছাড়া ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা, স্মার্ট এইচডিআর এবং অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন।

ফেইস আইডি যারা পছন্দ করেন না, তাদের জন্য এই ফোনটিতে আছে টাচ আইডি। এ ছাড়া লাইটনিং পোর্টও আছে। তবে ফোনটিতে কোনো হেডফোন জ্যাক ব্যবহার করেনি অ্যাপল। অর্থাৎ আইফোন এসই ব্যবহার করতে চাইলে আপনাকে ওয়্যারলেস হেডফোন বা এয়ারপড ব্যবহার করতেই হবে।

sheikh mujib 2020