advertisement
আপনি দেখছেন

যতো দিন যাচ্ছে স্মার্টফোনের পর্দার আকৃতি ততোই বড় হচ্ছে। সমানতালে স্লিম হয়ে আসছে ফোনের বেজেল। অ্যাপল থেকে শুরু করে স্যামসাং, হুয়াওয়েসহ প্রায় সব প্রতিষ্ঠানই পর্দার আকৃতি বড় করা নিয়ে নানা রকম কাজ করছে। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে এই কাজে এগিয়ে চীনা প্রতিষ্ঠান শাওমি।

xiaomi invisible selfie camera to come up

শাওমিকে বলা হয় এশিয়ার অ্যাপল। কথাটা যে একেবারে ফেলনা নয়, তা নানা সময়ে প্রমাণ করে ছেড়েছে শাওমি। এশিয়ার বাজারে তাদের জয়জয়কার প্রতিদিনই পাচ্ছে নতুন মাত্রা। এবার তাতে নতুন কিছু যোগ করতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

পর্দার আকৃতি বড় করার চেষ্টায় ব্যস্ত থাকলেও এখনো কোনো প্রতিষ্ঠান সেলফি ক্যামেরার জন্য এমন কোনো স্থান খুঁজে পায়নি, যা শাওমি পেয়েছে। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি দেখিয়েছে যে, তাদের সেলফি ক্যামেরা পর্দায় থাকলেও তা দেখা যাচ্ছে না। অর্থাৎ প্রায় অদৃশ্য সেলফি ক্যামেরাযুক্ত ফোন আনতে যাচ্ছে শাওমি। যেখানে পুরো পর্দাটির মধ্যে কোনো রকম নচ, হোল বা ক্যামেরার কোনো চিহ্নই দৃশ্যমান নয়।

শাওমি তাদের এই ব্যবস্থাকে বলছে- তৃতীয় প্রজন্মের সেলফি ক্যামেরা। অথচ এর আগে প্রথম বা দ্বিতীয় প্রজন্মের কোনো অফিসিয়াল সেলফি ক্যামেরা প্রযুক্তির কথা তারা বলেনি। যা হোক, শাওমির এই ক্যামেরা এরই মধ্যে প্রযুক্তি বিশ্লেষকদের আগ্রহের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

এখন পর্যন্ত সেলফি ক্যামেরার অবস্থানকে সবচেয়ে ছোট করতে পেরেছে স্যামসাং। তারা পর্দার উপরের দিকে বা একপাশে পাঞ্চ হোল বলে একটি ছোট্ট ডটের মতো জায়গা তৈরি করে সেখানে সেলফি ক্যামেরা ইন্সটল করেছে।

কিন্তু শাওমি এই ক্যামেরাকে নিয়ে গেছে একবারে পর্দার নিচে এবং পর্দায় বিদ্যমান পিক্সেলের ফাঁকা দিয়ে ক্যামেরার অবস্থান তৈরি করেছে। এর ফলে পর্দার পিক্সেলে তেমন বড় কোনো পার্থক্য দৃশ্যমান হয়নি। তবে এই ক্যামেরা প্রোটোটাইপ বা পরীক্ষামূলক পর্যায়ে থাকা অবস্থায় পর্দায় বড়সড় ঝামেলা হয়েছিলো।

কিন্তু শাওমি আরো গবেষণা ও বিশ্লেষণের এক পর্যায়ে পর্দার পিক্সেলের মধ্যে ফাঁকা তৈরি করে এমন ব্যবস্থা করেছে যে, পর্দার নিজে লুকায়িত সেলফি ক্যামেরা থাকার পরও পর্দায় কোনো ভিডিও বা ছবি দেখার সময় কোনো রকম চিহ্ন দেখা যায় না।

এই ক্যামেরাসম্বলিত কোনো ফোন এখন পর্যন্ত বাজারে আনেনি শাওমি। তবে ধারণা করা হচ্ছে তাদের ভবিষ্যত ফোনগুলোতে শিগগিরই এই ক্যামেরার ব্যবহার শুরু হবে।