advertisement
আপনি দেখছেন

মারণ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে পুরো বাংলাদেশই প্রায় এখন কোয়ারেন্টিনে। বহু মানুষ ঘরের বাইরে যাচ্ছেন না, যেতে পারছেন না। তারপরও একান্ত প্রয়োজনে অনেককে বাধ্য হয়ে বাসার বাইরে যেতে হয়। এই বাধ্য হওয়া সময়টুকুতে তাই অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করা বিশেষভাবে জরুরি। এক মুহূর্তের অসতর্কতা আপনার এই ঘরে বন্দি থাকার সময়টাকে নষ্ট করে দিতে পারে। সুতরাং নিজের ফোনটা পরিষ্কার রাখুন, জীবাণুমক্ত রাখুন।

clean your phone in the time of coronavirus

একটা সময় ছিলো যখন ইলেকট্রিক ডিভাইস কিভাবে পরিষ্কার করতে হয়, তা নিয়ে নানা ধরনের কৌতুহল কাজ করতো সবার মধ্যে। কিন্তু সেই পরিস্থিতি আর নেই। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এই সময়ে অ্যাপল, স্যামসাংয়ের মতো প্রতিষ্ঠান আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছে কিভাবে তাদের ডিভাইসগুলো জীবাণুমুক্ত করে নিশ্চিন্তে ব্যবহার করা যায়।

অ্যাপল জানিয়েছে, জীবাণুমুক্তকরণ ভেজা টিস্যু দিয়ে মুছে ফেলার মাধ্যমে আপনি আপনার আইফোন, আইপ্যাড বা ম্যাকবুক পরিষ্কার করে ফেলতে পারেন। স্যামসাং জানিয়েছে, অ্যালকোহলবেজড স্যানিটাইজার ব্যবহার করেও ইলেকট্রিক ডিভাইসে থাকা জীবাণু দূর করা যায়।

কিন্তু পরিষ্কার করার প্রক্রিয়াতে এমন কিছু কাজ আছে, যা করা যাবে না। করলে আপনার ডিভাইসের স্ক্রিন স্থায়ীভাবে বাতিল হয়ে যেতে পারে। এমন কি ভেতরের মূল বোর্ডও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে যার ফলে পুরো ডিভাইসটি অব্যবহারযোগ্য হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

ফোন জীবাণুমুক্ত করার জন্য অ্যালকোহল দিয়ে স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু শুধু অ্যালকোহল ব্যবহার করতে যাবেন না। এতে আপনার ফোনের অন্য ক্ষতি হতে পারে। যেমন শুধু অ্যালকোহল ব্যবহার করলে ফোনের এলোফোবিক ও হাইড্রোফোবিক কোটিং নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এই কোটিং আপনার ফোনের ডিসপ্লে ও অন্যান্য পোর্টকে তেল ও পানির প্রবাহ ভেতরে ঢুকে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।

মানবদেহ অক্লান্তভাবে তেল উৎপন্ন করে। ফলে আপনি যতোবার আপনার ফোন স্পর্শ করেন, ততোবার ফোনের গায়ে তেল লেগে যায় এবং আপনার আঙুলের ছাপ লেগে যায়। এটি পরিষ্কার করার সেরা উপায় হলো মাইক্রোফাইবার কাপড় ব্যবহার করা। স্ক্রিনের ক্ষেত্রে মাইক্রোফাইবার কাপড়ে সামান্য পানি মিশিয়ে স্ক্রিন মুছে ফেলুন। কিন্তু সরাসরি স্ক্রিনে পানি ছিটিয়ে দেওয়া ভালো কোনো কাজ হবে না।

ইন্টারনেট ঘাঁটলে এ রকম আরো উপায় পাবেন যাতে ফোন পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করা যায়। মনে রাখবেন, জীবাণুযুক্ত ফোন থেকে করোনা ভাইরাসের জীবাণু আপনার হাতে, মুখে ছড়িয়ে মারাত্মক বিপদের কারণ হতে পারে।