advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের বাজারে পরীক্ষামূলকভাবে খাবার ডেলিভারি দেওয়া শুরু করলো প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যামাজন। আপাতত ভারতের বৃহত্তম প্রযুক্তি-হাব ব্যাঙ্গালুরুর চারটি অঞ্চলে খাবার ডেলিভারি দিবে প্রতিষ্ঠানটি।

amazone food delivery in india

অ্যামাজন এমন সময়ে এই সিদ্ধান্ত নিলো যখন পৃথিবীর অনেক অঞ্চলে অনলাইন নির্ভর কেনাকাটার চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। যেমন যুক্তরাষ্ট্রে বেশির ভাগ মানুষ এখন অনলাইনে কেনাকাটাকে প্রাধান্য দিচ্ছেন।

ভারতে অবশ্য অনলাইন কেনাকাটা যতোটা হয়, এখন তার চেয়ে বেশ কম হচ্ছে। তারপরও অ্যামাজন তাদের পরীক্ষামূলক কার্যক্রমটি শুরু করেছে।

এর আগে উবারও তাদের উবার ইট সেবাটি ভারতে চালু করেছিলো। কিন্তু সুবিধা করতে না পেরে গত বছর উবার তাদের এই সেবা স্থানীয় প্রতিষ্ঠান জোমাটোর কাছে বিক্রি করে দেয়।

অ্যামাজন ভারতের বিভিন্ন খাতে অন্তত সাড়ে ছয় বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করার উদ্যোগ নিয়েছে। ওয়ালমার্টের মতো অ্যামাজনও ভারতের বাজারকে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় বাজার হিসেবে দেখছে।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে লকডাউন শুরু করার আগেই খাবার ডেলিভারি সেবা চালু করার পরিকল্পনা ছিলো অ্যামাজনের। কিন্তু লকডাউনের কারণে তা আর সম্ভব হয়নি। পরে অবশ্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবারহে সরকারের পক্ষ থেকে কিছুটা ছাড় দেওয়া হলে অ্যামাজন পরীক্ষামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করলো।

ব্যাঙ্গালুরুর প্রায় ১০০টি রেস্টুরেন্ট অ্যামাজনের এই উদ্যোগে সম্পৃক্ত থাকছে। এই অঞ্চলে সফলতা পেলে ভারতের অন্যান্য অঞ্চলেও অ্যামাজন তাদের সার্ভিসটি ছড়িয়ে দিবে।

অ্যামাজন এক বিবৃতি বলেছে, “অন্যান্য অনেক কিছু কেনার পাশাপাশি গ্রাহকরা আমাদের কাছ থেকে প্রস্তুতকৃত খাবার অর্ডার করার কথা বলে আসছিলো। এই সেবাটি এই মুহূর্তে আরো বেশি দরকার, যখন বেশির ভাগ লোক ঘরবন্দি অবস্থায় আছেন।”

এক সময় অনলাইনে বই বিক্রি করতো অ্যামাজন। সেখান থেকে এখন তারা অনলাইনের প্রায় সব ব্যবসাই করে। অ্যামাজনের খাবার ডেলিভারি কার্যক্রম স্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে।