advertisement
আপনি পড়ছেন

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন ও বাজার সম্প্রসারণে দেশে-বিদেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রচারে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ইউরোপের তিনটি দেশ অস্ট্রিয়া, হাঙ্গেরি এবং যুক্তরাজ্যে নানা আয়োজনে প্রত্যক্ষভাবে অংশ নিচ্ছে বেসিস। প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক কোনো আয়োজনে টাইটেল স্পন্সর হিসেবে নতুন মাইলফলক যুক্ত করতে যাচ্ছে সংগঠনটি।

basis 3বেসিসের সংবাদ সম্মেলন

এ উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার (২৮ জুন) বেসিস মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বলেন, বেসিসের সদস্য কোম্পানি এখন এক দশমিক চার বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় করছে, সেটিকে পাঁচ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্র্যান্ডিং ও বিদেশি বিনিয়োগের বিকল্প নেই। আন্তর্জাতিক বাজারে ব্র্যান্ডিং ও বিনিয়োগের এই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এবার আমরা ইউরোপের বাজারে তিনটি বৃহৎ অনুষ্ঠানে প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করছি। সেখানে অস্ট্রিয়া, হাঙ্গেরি ও যুক্তরাজ্যের ৩৫০টি কোম্পানির সামনে বেসিস থেকে ‘বাংলাদেশ - দ্য নেক্সট আইসিটি পাওয়ারহাউজ’ নামক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করা হবে। যেখানে বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে ধরা হবে।

তিনি আরও বলেন, দেশগুলোর তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠনগুলোর সাথে আমাদের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। আমরা বিশ্বাস করি, এর মাধ্যমে আমাদের নতুন নতুন অংশীদারিত্ব তৈরি হবে এবং বিদেশি বিনিয়োগ বাড়বে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি সামিরা জুবেরি হিমিকা, পরিচালক আহমেদুল ইসলাম বাবু এবং অ্যাডভাইজরি স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম রাশিদুল হাসান।

আয়োজনের অংশ হিসেবে আগামী ৩০ জুন অস্ট্রিয়াতে, ১ জুলাই হাঙ্গেরিতে এবং ২ থেকে ৬ জুলাই যুক্তরাজ্যে সফর করবেন বেসিসের প্রতিনিধিদল। যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে ৫ জুলাই থেকে ৬ জুলাই গ্লোবাল সোর্সিং অ্যাসোসিয়েশনের একটি ফ্ল্যাগশিপ ইভেন্ট ফেস্টিভ্যাল অব সোর্সিং অনুষ্ঠিত হবে।