advertisement
আপনি পড়ছেন

মোবাইল ফোনের নম্বর না বদলে অপারেটর পরিবর্তন বা এমএনপি সেবা মে মাসে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও কারিগরি কাজ শেষ না হওয়ায় তা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর সংগঠন অ্যামটবের মহাসচিব টিআইএম নুরুল কবির। তবে আগস্ট মাস থেকে এই সুবিধা পাওয়া ‘সম্ভাবনা’ রয়েছে।

bio metric sim registration started in bangladesh

নুরুল কবির জানান, এমএনপির সবকিছু আমরা চূড়ান্তভাবে বুঝে পেয়েছি গত ২১ মার্চ। মূলত এ কারণে সবকিছুর মধ্যে সমন্বয় ঘটাতে সময় লাগছে। আগস্টের যে কোনও সময় এই সেবা চালু হতে পারে।

এমএনপি সেবা চালু হলে মোবাইল নম্বর ঠিক রেখে মোবাইল ফোন অপারেটর পরিবর্তনের সুবিধা পাবেন গ্রাহকরা। ফলে কোনো সমস্যা ছাড়া গ্রাহক নিজের ব্যবহৃত নম্বরটি না বদলেও যে অপারেটরের সেবা পছন্দ হবে সেই অপারেটরের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। তবে প্রতিবার অপারেটর বদলের জন্য গ্রাহককে ৩০ টাকা ফি দিতে হবে। ফি দেয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তা চালু হবে। পরবর্তীতে আবার অপারেটর বদলের জন্য গ্রাহককে ৯০ দিন অপেক্ষা করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৩ জুন বিটিআরসি মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোকে পরবর্তী সাত মাসের মধ্যে এমএনপি চালু করার নির্দেশ দেয়।

বাংলাদেশ ও স্লোভেনিয়ার যৌথ কনসোর্টিয়াম ইনফোজিলিয়ান বিডি টেলিটেক বাংলাদেশে এমএনপি সেবা দেয়ার অনুমোদন পায়। মে মাস নাগাদ এই সুবিধা দেয়ার কথা থাকলেও নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দুই-তিন মাস সময় বেশি লাগতে পারে বলে জানায় সংস্থাটি।