advertisement
আপনি দেখছেন

মোবাইল ইন্টারনেটের গতির ক্ষেত্রে শেষ ৫-এর চারটি দেশের ওপরে রয়েছে ডিজিটাল বাংলাদেশ। গেলোবারের মতো ১৩৫ নম্বরেই রয়েছে এবার, যার পরে রয়েছে যথাক্রমে জিম্বাবুয়ে, ফিলিস্তিন, ভেনেজুয়েলা ও আফগানিস্তান। সম্প্রতি প্রকাশিত ওকলার জুলাইয়ের প্রতিবেদনে এমনটাই দেখা গেছে।

mobile internet speed lowমোবাইল ইন্টারনেটের গতি কম- ফাইল ছবি

গত প্রতিবেদনে ১৩৭টি দেশের মধ্যে ১৩৫ নম্বরে ছিল ঢাকা। এবারের তালিকায় আরো দুটি যুক্ত হয়ে দেশের সংখ্যা করা হয়েছে ১৩৯টি। এসব দেশের গড় ইন্টারনেট গতির তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। তাতে বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গড় গতি সামান্য বাড়লেও কিছুটা কমেছে আপলোডের গতি।

ইন্টারনেট গতি প্রতি সেকেন্ডে ১২ দশমিক ৪৮ মেগাবিট (এমবিপিএস) ছিল জুনে, যা পরের মাসে বেড়ে ১২ দশমিক ৬ এ দাঁড়িয়েছে। আপলোডের গতি জুলাইয়ে নেমেছে ৭ দশমিক ৬৫ এমবিপিএসে, যা জুনে ছিল ৭ দশমিক ৯৮ এ।

mobile internet speed low 1মোবাইল ইন্টারনেট, ফাইল ছবি

এই তালিকায় শীর্ষে থাকা সংযুক্ত আরব আমিরাতে জুলাইয়ে ডাউনলোডে ১৯০ এমবিপিএস গতি ছিল। আপলোডের বেলায় সেটি ছিল ২৬ দশমিক ৫৪ এমবিপিএস। শেষ দিক থেকে বাংলাদেশের ওপরে রয়েছে যথাক্রমে সোমালিয়া (১৩৪তম), ঘানা (১৩৩তম), তানজানিয়া (১৩২তম) ও সুদান (১৩১তম)।

এ ছাড়া ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে ১৮০টি দেশের মধ্যে ৯৯তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। গত জুলাইয়ে ডাউনলোডের গড় গতি ৩৮ দশমিক ২৭ এমবিপিএস ছিল, আপলোডে ৩৬ দশমিক ৫১ এমবিপিএস। এ তালিকায় শীর্ষে রয়েছে মোনাকো, যেখানে ডাউনলোডে ২৫৬ দশমিক ৭ এমবিপিএস এবং আপলোডে ১৫৬ এমবিপিএসের বেশি গতি রয়েছে।

মোবাইল ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে বৈশ্বিক ডাউনলোড গতির গড় ৫৫ দশমিক শূন্য ৭ এমবিপিএস। আর ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে এটি ১০৭ দশমিক ৫ এমবিপিএস। এই দুই ধরনের মধ্যে জুনে বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটে ১১ কোটি ৯ লাখ এবং ব্রডব্যান্ডে ১ কোটির সামান্য বেশি গ্রাহক ছিল।