advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগকে (আইপিএল) বিশেষায়িত করতে গিয়ে অনেকে ‘অর্থের ছড়াছড়ি’ শব্দ দুটি ব্যবহার করে থাকেন। এই দুই শব্দ যে মোটেও বাড়াবাড়ি নয় সেটা আইপিএলের অর্থনৈতিক দিকগুলোর দিকে একবার তাকালেই ধারাণা পাওয়া যায়। প্রাইজমানি বা পুরস্কারের তালিকায় চোখ বুলালেও অর্থের ছড়াছড়ির বিষয়টি আন্দাজ করা যায়।

ipl champion money

চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ দলের ব্যাংক একাউন্ট তো ফুলে ফেঁপে উঠেই, খেলোয়াড়দেরও মাস খানেকের মধ্যে ‘বড়লোক’ বানিয়ে ছাড়ে আইপিএল। এবারের আসরের প্রাইজমানি ও বিভিন্ন পুরস্কারের অর্থের অঙ্ক প্রকাশ করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। সেটা দেখে মনে হতেই পারে আইপিএলে ‘এতো টাকা’!  চলুন তাহলে এবারের আইপিএলের বিভিন্ন পুরস্কারের অর্থের পরিমানে একবার চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক-

রাউন্ড রবিন লিগের অর্থাৎ গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলোতে ম্যাচসেরা খেলোয়াড় পুরস্কার হিসেবে পাবেন এক লাখ রুপির চেক। প্লে-অফের ম্যাচে ম্যাচসেরার পুরস্কারের অর্থের অঙ্কটা বেড়ে হবে পাঁচ লাখ রুপি।

প্রতি ম্যাচে সেরা ক্যাচ নির্বাচন করে নির্বাচিত খেলোয়াড়কে দেওয়া হবে এক লাখ রুপি। প্রতি ম্যাচে সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানো ব্যাটসম্যানও পাবেন এক লাখ রুপি।

মৌসুমের সেরা ক্যাচ নেওয়া ক্রিকেটার পাবেন ১০ লাখ রুপি। সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানো খেলোয়াড়ও পাবেন ১০ লাখ রুপি। এছাড়া দ্রুততম ফিফটি করা ব্যাটসম্যান, ম্যাচে প্রভাবের ওপর ভিত্তি করে নির্বাচিত সেরা স্টাইলিশ প্লেয়ার, আসরের সেরা শট নির্বাচিত হওয়া ক্রিকেটার, আসরের উদীয়মান ক্রিকেটার ও আসরে মোস্ট ভ্যালুয়েবল প্লেয়ারও পাবেন একেকজন ১০ লাখ রুপি করে।

টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ১৫ কোটি রুপির চেক। রানার্সআপ পাবে ১০ কোটি। আর প্লে-অফ খেলা প্রতিটি দল পাবে ৫ কোটি রুপি। অর্থের ছড়াছাড়ি কী আর সাধে বলা হয়!

sheikh mujib 2020