advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

দুটি বড় রেকর্ড ডাকছিল বিরাট কোহলিকে। টস হেরে ব্যাটিং পেয়ে রেকর্ড দুটি গড়ার অনুকূল পরিবেশও পেয়েছিলেন সময়ের সেরা ব্যাটসম্যানটি। কিন্তু হরভজন সিং কোহলিকে রেকর্ড গড়তে দিলেন না। শুধু কোহলি নয়, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর সব সমর্থককেই হতাশ করেছেন অনেকদিন ভারতীয় দলের বাইরে থাকা হরভজন।

chennai super kings vs royal challengers bangalore at chennai

নিজের কোটার চার ওভার বোলিং করে মাত্র ২০ রান খরচায় কোহলির পর মহা-তারকা এবি ডি ভিলিয়ার্স ও মঈন আলীকেও ফিরিয়েছেন হরভজন। এই ডানহাতি স্পিনারের তোপে ৩৮ রানে তিন উইকেট হারানো বেঙ্গালুরুর স্কোর একটা সময় গিয়ে দাঁড়ায় ৫০/৬! আইপিএলে উদ্বোধনী ম্যাচ খেলতে নেমে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে রীতিমতো ধসে পড়ার দশা কোহলির বেঙ্গালুরুর।

১২তম আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচের আগে টুর্নামেন্টে কোহলির মোট রান ছিল ৪ হাজার ৯৪৮। আইপিএল ইতিহাসে তার চেয়ে বেশি রান আছে কেবল একজনেরই, সুরেশ রায়না। ভারতীয় অলরাউন্ডারের রান ৪ হাজার ৯৮৫।

অর্থাৎ আজ ৩৮ রান করতে পারলেই রায়নাকে ছাড়িয়ে আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ রানের মালিক বনে যেতেন কোহলি। আর তার চেয়ে ১৪ রান বেশি করতে পারলে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএল ইতিহাসে পাঁচ হাজার রান করার কৃর্তি গড়তেন।

হরভজন ঝড়ের সামনে তার কিছুই হলো না। ওপেনিং করতে নেমে ১২ বলে ৬ রান করে ফিরেছেন কোহলি। এরপর মঈন আলী (৯) ও এবিডি ভিলিয়ার্সকেও (৯) ফেরান হরভজন। ৩৮ বছর বয়সী স্পিনারের সঙ্গে পড়ে যোগ দিয়েছেন চেন্নাইয়ের অপর দুই স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা ও ইমরান তাহিরও। ফলে ১০.৩ ওভারে দলীয় ৫০ রানের মাথায় ষষ্ঠ উইকেট হারিয়ে বসে কোহলির বেঙ্গালুরু। আইপিএলের প্রথম ম্যাচে নিশ্চয় এমন ব্যাটিং ব্যর্থতা প্রত্যাশা করেননি দর্শকরা!

sheikh mujib 2020