advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

শঙ্কা থাকলেও শেষ পর্যন্ত হায়দরাবাদের প্রথম ম্যাচেই সেরা একাদশে জায়গা হয় সাকিব আল হাসানের। তারপর হায়দরাবাদ টস হেরে যখন প্রথমে ব্যাটিং পেলো মনে হচ্ছিল অনেকদিন পর হয়তো সাকিবকে ব্যাটিং করতে দেখা যাবে! কিন্তু ব্যাটিংয়ে সুযোগই পেলেন না বাংলাদেশি অলরাউন্ডার। ইডেন গার্ডেনে শেষ পর্যন্ত কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে নির্ধারিত ২০ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে ১৮১ রান তুলেছে হায়দরাবাদ।

shakib al hasan hyderabad bowling

ম্যাচের অবস্থা অনুযায়ী অবশ্য সাকিবের ব্যাটিং না পাওয়ার বিষয়টি স্বাভাবিকই। ব্যাটিংয়ে ৩২ বছর বয়সী অলরাউন্ডারকে সাধারণত মিডল অর্ডারের নির্ভরতা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু টস হারা হায়দরাবাদের হয়ে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে দুই ওপেনার মিলেই খেলে ফেলেন প্রায় ১৩ ওভার (১২.৫)। এরপর ওয়ান ডাউনে নেমে বিজয় শঙ্কর দারুণ ব্যাটিং করেছেন।

হায়দরাবাদের যখন দ্বিতীয় উইকেট পড়ল ততক্ষণে ১৬ ওভারের খেলা শেষ। এরপর মাত্র চার ওভার ছিল বলে দ্রুত রান তোলার মতো হার্ডহিটারকে ব্যাটিংয়ের পাঠানোর দরকার ছিল। হায়দরাবাদ করেছেও সেটা। চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামে ইউসুফ পাঠান। ইউসুফ সুবিধা করতে না পারলেও পাঁচে নেমে ইনিংস শেষ করে আসেন মানিশ পান্ডে। ওদিকে বিজয় শঙ্কর শেষ পর্যন্ত অপরাজিতই ছিলেন। ফলে ব্যাটিংয়ে আর নামা হয়নি সাকিবের।

হায়দরাবাদরে ১৮৫ রানের স্কোরে বড় অবদান নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা ডেভিড ওয়ার্নারের। ওপেনিং করতে নেমে ৫৩ বলে ৯টি চার ৩টি ছক্কায় ৮৫ রান করেছেন অজি তারকা। বিজয় শঙ্কর ২৪ বলে ৪০ রান করে অপরাজিত ছিলেন।

এদিকে, সাকিব ব্যাটিংয়ে সুযোগ না পেলেও তাকে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই বোলিংয়ে এনেছিলেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক ভুবনেশ্বর কুমার। সাকিব বল হাতে পেয়েই ঝলসে উঠেন। নিজের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা হজম করলেও ষষ্ঠ বলে গিয়ে ভয়ঙ্কর ক্রিস লিনকে সাজঘরে ফেরান সাকিব। ওই ওভারে একটি ছক্কা বাদে আর রান দেননি বাংলাদেশি অলরাউন্ডার।

sheikh mujib 2020