advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের মাসখানেক পরের ঘটনা। একটি পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছিল পাকিস্তান ক্রিকেট দল। বিশ্বকাপে দারুণ খেলে আসা বাংলাদেশের বিপক্ষে সেবার কোমর বেঁধেই এসেছিল পাকিস্তান। কিন্তু তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকাররা পাকিস্তানিদের রীতিমতো কাঁদিয়ে ছেড়েছিলেন।

afridi sad vs bangladesh

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের একটিতে দাপুটে ড্র করার পর তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের ৩-০ তে হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। সিরিজের একমাত্র টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে হারিয়ে দিয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। টানা চার ম্যাচ হেরে বাংলাদেশ থেকে নতজানু হয়ে ফিরতে হয়েছিল পাকিস্তানকে। সেই লজ্জাটা হয়তো ভুলে গেছেন শহিদ আফ্রিদি!

কথায় কথায় বাংলাদেশকে যে ‘ছোট দল’ বলে দিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক। এই মুহূর্তে আরব আমিরাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলছে পাকিস্তান। বিশ্বকাপের কথা চিন্তা করে সিরিজে পাঁচজন ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দিয়েছে পাকিস্তানের টিম ম্যানেজম্যান্ট। এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করতে গিয়ে বাংলাদেশকে ‘ছোট দল’ বলেছেন আফ্রিদি।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডেতে বাজেভাবে হেরে গেছে পাকিস্তান। এর জের ধরে আফ্রিদিকে প্রশ্ন করা হয়েছিল সেই পাঁচ বিশ্রাম নিয়ে।
এই প্রশ্নে বাংলাদেশকে টেনে আফ্রিদি বলেন, ‘আমার মনে হয় বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের মতো দলের বিপক্ষে যদি সিরিজ হতো, র‌্যাঙ্কিংয়ের সাত-আট নম্বর দলের সঙ্গে হতো তাহলে বিশ্রাম দেওয়া যেতো। কিন্তু বড় দলের (অস্ট্রেলিয়া) বিপক্ষে বিশ্রাম দেওয়া ঠিক নয়। বড় দলের বিপক্ষে ভালো খেললে খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসও বাড়ত। এমন নয় যে তারা (পাকিস্তানের বর্তমান দলের ক্রিকেটার) পনের-বিশ বছর ধরে ক্রিকেট খেলছে, তারা মাত্রই ক্রিকেট শুরু করেছে।’

আফ্রিদি বাংলাদেশের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার ঘটনাটা বুঝি ভুলেই গিয়েছিলেন! ২০১৫ সালের ওই বাংলাদেশ সফরে টেস্ট ওয়ানডে দলে না থাকলেও আফ্রিদি পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলে ছিলেন। অধিনায়ক হিসেবেই ছিলেন। ওই ঘটনা ভুলে গেলেও ২০১৬ সালের এশিয়া কাপের কথা তো ভোলার কথা নয়।

সেবার তার নেতৃত্বে বাংলাদেশে এশিয়া কাপ খেলতে এসেছিল পাকিস্তান। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের কাছে হেরেই বিদায় নিতে হয়েছিল আফ্রিদির পাকিস্তানকে। অলিখিত সেমিফাইনালে পরিনত হওয়া ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। ওই হারের জেরে আফ্রিদির অধিনায়কত্বের ভিতই নড়বড়ে হয়ে গিয়েছিল। পরে অধিনায়কত্ব ও একাদশে জায়গা দুটোই হারাতে হয়েছিল আলোচিত এই ক্রিকেটারকে।

সম্প্রতি পরিসংখ্যানেও পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। গত বিশ্বকাপের পর থেকে বাংলাদেশের বিপক্ষে নয় ম্যাচ খেলে ছয়বারই হারতে হয়েছে পাকিস্তানকে। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তান ছয় নম্বরে, বাংলাদেশ সাতে। কয়েক মাস আগেও র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের পেছনে ছিল পাকিস্তান। তারপরও কী বুঝে ‘ছোট দল’ ট্যাগ লাগাতে চাইলেন সেটা আফ্রিদিই হয়তো ভালো বলতে পারবেন!

sheikh mujib 2020