advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

ক্রিকেটে একটা আফসোস বহু দিনের। বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় এই খেলার আবিষ্কারক ইংল্যান্ড, কিন্তু এখন পর্যন্ত খেলাটির বিশ্বকাপ জিততে পারেনি দেশটি! ইংলিশরা কতোবার, কতোভাবেই না চেষ্টা করেছে, কিন্তু ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদার টুর্নামেন্ট ওয়ানডে বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে পারেনি।

jofra archer england team

দু’বার ফাইনাল খেলেও ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতা হয়নি ইংল্যান্ডের। মাস দুই পর ইংল্যান্ডের মাটিতে বসছে আরেকটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ইংলিশরা এবার অধরা শিরোপা ধরার জন্য রীতিমতো মরিয়াই। এবার ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়ে যে কোনো কিছুর বিনিময়ে বিশ্বকাপ জিততে চায় -এমন ভঙ্গিমায় অনেকবারই কথা বলেছেন ইংলিশরা। কাজেও তার প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে।

বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ক্যারিবীয়ান জোফরা আর্চারকে যেভাবে নিজেদের বানিয়ে ফেলার চেষ্টা করে যাচ্ছে ইংল্যান্ড, সেটা এক প্রকার বাড়াবাড়িই। উইন্ডিজের পেসার আর্চার সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটে অনেকদিন ধরেই দারুণ বোলিং করে চলেছেন। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট লিগগুলোতে হটকেক তিনি। ইংলিশ কাউন্টিতে নিয়মিত ভালো বোলিং করেছেন।

এই আর্চারকে একটা রাস্তায় বিশ্বকাপের ট্রাম্পকার্ড বানানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছে ইংল্যান্ড। ২৩ বছর বয়সী তরুণের বাবা ইংলিশ, মা ক্যারিবীয়ান। জন্ম উইন্ডিজের বার্বাডোজে হলেও অনেকদিন ধরে ইংল্যান্ডেই আছেন আর্চার। এই সুযোগে তরুণ প্রতিভাকে নিজেদের দলে খেলানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে ইংল্যান্ড।

এরই মধ্যে আর্চারকে নাগরিকত্বও দিয়ে দিয়েছে ইংলিশরা। এখন শোনা যাচ্ছে, ইংল্যান্ড দলে আর্চারের অভিষেক সময়ের ব্যাপার মাত্র। বিশ্বকাপের আগে আগামী পাকিস্তান সিরিজেই আর্চারকে ইংল্যান্ড দলে দেখা যাওয়ার ভালো সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক এইডেন মরগান বিষয়টি নিয়ে খোলাখুলি মন্তব্যই করেছেন।

মরগান বলেন, ‘সারা বিশ্বজুড়ে খেলার অভিজ্ঞতা আছে জোফরার। ভালো পারফর্ম করে নজরও কেড়েছে। উইন্ডিজ সিরিজের পর বেইলিস (ইংল্যান্ড কোচ) বলেছেন, পাকিস্তান সিরিজে আমরা তাকে দেখবো এবং পর্যবেক্ষণ করব।’ তার মানে আর্চারের ইংল্যান্ডের হয়ে খেলাটা একপ্রকার নিশ্চিত!

sheikh mujib 2020