advertisement
আপনি দেখছেন

প্রবাদ আছে, সময় খারাপ থাকলে চামচিকাও লাথি মারে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এখন সেই সময়টা চলছে। বিশ্বকাপের পর থেকেই ক্রিকেটের দুর্দশার চিত্রটা ফুটে ওঠে। চলমান ভারত সিরিজেও সেটা অব্যাহত রয়েছে। সবশেষ ঐতিহাসিক পিংক বল টেস্টে ভারতীয় পেসারদের বাউন্সারে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন লিটন দাস ও নাঈম হাসান। হেলমেটে বল লেগেছে মুশফিকুর রহিম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোহাম্মদ মিঠুনেরও।

bd cricket kolkatapolice

ভারতীয় পেস আক্রমণের বিপক্ষে টাইগারদের এমন অসহায়ত্বকে ব্যঙ্গ করে বিজ্ঞাপন প্রচারণা চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশ। যা নিয়ে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। জনসাধারণকে ট্রাফিক আইন বিষয়ে সচেতন করতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন প্রচারণা চালানো হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।

রোববার কলকাতা পুলিশের ফেসবুক পেজে টাইগারদের হেলমেটে বল লাগার দৃশ্যের একটি ফটো পোস্ট করা হয়। ফটোর গায়ে লেখা ‘রাখে হেলমেট, মারে কে!’ সুরক্ষিত থাকার জন্য বাইক চালকদের সচেতন করতেই হেলমেট নিয়ে এমন প্রচারণা চালায় কলকাতা পুলিশ।

তবে বাংলাদেশের সমর্থকরা এটিকে মানতে পারেন নি। তারা বলছে, টাইগারদের তাচ্ছিল্য করতেই এমনটা করেছে কলকাতা পুলিশ। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুরু হয়েছে সমালোচনার ঝড়। এর আগে বাংলাদেশকে তাচ্ছিল্য করে বিজ্ঞাপন প্রচার করে ভারতীয় স্টার স্পোটস চ্যানেল। যা নিয়ে দেশ-বিদেশে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।