advertisement
আপনি দেখছেন

প্রথমে ব্যাটিং করে ৩৫৩ রান তোলার পর দেড়শ’র আগেই নিউজিল্যান্ডের পাঁচ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেয় ইংল্যান্ড। তখন মনে হচ্ছিল রঙিন পোশাকের ক্রিকেটের মতো নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সাদা পোশাকেও হয়তো ইংলিশদের দাপট চলবে। কিন্তু হলো উল্টোটা। বিজে ওয়াটলিং ও মিচেল স্যান্টনারের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে শেষ পর্যন্ত ইনিংস ব্যবধানে হারতে হয়েছে ইংল্যান্ডকে।

neil wagner bellows an appealমাউন্ট মাঙ্গাইনু টেস্টে নিল ওয়াগনারের আরেকবার আবেদন আরেকটি উইকেট- ছবি ইন্টারনেট

মাউন্ট মাঙ্গাইনু টেস্টে ইনিংস ও ৬৫ রানের জয় পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। এই জয়ে ২ ম্যাচ টেস্টে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেটে ৫৫ রান নিয়ে আজ পঞ্চম দিনে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ড আজ দিনের শুরু থেকেই ড্রয়ের চিন্তায় ব্যাটিং করেছে। জো রুট, বেন স্টোকসরা রান তোলার চিন্তা বাদ দিয়ে উইকেটে টিকে থাকার চেষ্টাই করে গেছেন। কিন্তু নিল ওয়াগনার, মিচেল স্যান্টনাররা ইংলিশদের এই চেষ্টা বৃথা করে দিয়েছেন।

ওয়াগনার চতুর্থ ইনিংসে সুইংয়ের পসরা সাজিয়ে বসেছিলেন। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলা স্যান্টনার তার সঙ্গে স্পিন বিষ ঢেলেছেন পুরো ইনিংসে। যাতে ইংলিশদের ধৈর্যধারণ কাজে লাগেনি। ১৯৭ রানে গুটিয়ে গেছে জো রুটের দল। ইংলিশদের হয়ে জো ডেনলি সর্বোচ্চ ৩৫ রান করেছেন। দশ নম্বরে নেমে ৩০ করেছেন পেসার জোফরা আর্চার। নিউজিল্যান্ডের হয়ে বিজে ওয়াটলিং ৪৪ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন। মিচেল স্যান্টনার ৫৩ রানে নিয়েছেন তিন উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ৩৫৩/১০, ওভার ১২৪ (বেন স্টোকস ৯১, জো ডেনলি ৭৪, জো বার্নস ৫২; টিম সাউদি ৪/৮৮, ওয়াগনার ৩/৯০)।

দ্বিতীয় ইনিংস: ১৯৭/১০, ওভার ৯৬.২ ডেনলি ৩৫, আর্চার ৩০, কুরান ২৯; ওয়াগনার ৪৪/৫, স্যান্টনার ৩/৫৩)।

নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ৬১৫/৯ ডি. ওভার ২০১ (ওয়াটলিং ২০৫, স্যান্টনার ১২৬, গ্র্যান্ডহোম ৬৫, উইলিয়ামসন ৫১; কুরান ৩/১১৩, স্টোকস ২/৭৪)।

ফলাফল: নিউজিল্যান্ড ইনিংস ও ৬৫ রানে জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ: বিজে ওয়াটলিং (নিউজিল্যান্ড)।