advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফট থেকে সরিয়ে রাখা হয়েছিল কাজি অনিককে। কিন্তু কেন? উত্তরটা জানিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ। আজ শনিবার এক প্রতিবেদনে তারা জানিয়েছে ডোপ টেস্টে পজিটিভ হয়েছেন অনিক। যে কোনো সময় নিষিদ্ধ হতে পারেন বাঁ-হাতি পেসার।

anik likely to be suspended after failing dope test

জাতীয় ক্রিকেট লিগ চলাকালীন অনিকের পারফরম্যান্স ও গতিবিধি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন আম্পায়াররা। পরে তার ডোপ টেস্ট করানো হয়। পরীক্ষার রিপোর্টে অনিকের শরীরের নিষিদ্ধ মাদকের উপাদান মিলেছে। এ অপরাধের জন্য অনিক কেমন শাস্তি পান সেটাই কার্যত দেখার।

শনিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নিশ্চিত করেছে ডোপ টেস্টে উতরাতে ব্যর্থ হয়েছেন উঠতি এই পেসার। এ কারণেই তাকে বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফটে রাখেননি নির্বাচকরা। ক্রিকবাজকে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

সাক্ষাৎকারে আজ তিনি বলেছেন, ‘চিকিৎসক দল আমাদের জানিয়েছে ও (অনিক) ডোপ টেস্টে পজিটিভ হয়েছে। জাতীয় লিগ চলাকালীন এই টেস্ট করানো হয়েছে। পরে আমরা ওকে জাতীয় লিগ থেকে সরিয়ে নিয়েছি এবং বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফটেও ওর নাম না রাখার সিদ্ধান্ত নেই।’

বিসিবির অ্যান্টি-ডোপিং আইনের ২.৪ ধারা ভঙ্গ করেছেন অনিক। এ ধরণের অপরাধের জন্য এক-দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়ে থাকে ক্রিকেটারকে। এক্ষেত্রে অপরাধের ধরণ চিহ্নিত করে নিষেধাজ্ঞার শাস্তি শোনানো হয়ে থাকে। অনিককে বিসিবি কেমন শাস্তি দেয় আপাতত সেটার জন্যই অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।

sheikh mujib 2020