advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 23 মিনিট আগে

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে সামিল হওয়ার লক্ষ্যে এবারের বাংলাদশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) অনুষ্ঠিত হচ্ছে নতুন মোড়কে। কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি নয়, এবারের বিপিএলের তত্ত্বাবধানে থাকছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। টুর্নামেন্টের নামকরণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু বিপিএল। অথচ আলোচিত এই টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার আগেই গণ্ডগোলের আভাস!

rangpur musta nabi taskin

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বিসিবি ও বিপিএল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বারবারই বলা হচ্ছিল, প্রতি ম্যাচে একাদশে অবশ্যই একজন ১৪০ কি. মি. এর বেশি গতিতে বোলিং করা বোলার এবং একজন লেগস্পিনার রাখতেই হবে।

দ্রুতগতির পেসারদের বিপক্ষে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের দুর্বলতা কাটিয়ে তোলা এবং লেগস্পিনার খুঁজে বের করার লক্ষ্যে এই নিয়ম মানার বিষয়টি বাধ্যতামূলক বলা হয়েছিল।

rangpur press mirpur

কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন এই বাধ্যবাধকতা মানতে অনীহা রংপুর রেঞ্জার্সের নয়া পরিচালক এনায়েত হোসেন সিরাজ। দলটির স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের পরিচালক হওয়ার কারণে হঠাৎ আকরাম খানকে সরিয়ে পরিচালকের পদে বসেছেন এনায়েত হোসেন। বিসিবির ইচ্ছাতেই হয়েছে এই অদল-বদল।

আজ সংবাদ সম্মেলনে এনায়েত হোসেন বললেন, ‘আমি একটা কথা বলি ১৪০ কি. মি. গতির বোলার খেলাতে হলে সে ধরনের উইকেটও নিশ্চয়ই বানিয়েছে! টিম কম্বিনেশন দেখতে হবে। আমি মনে করি এ ধরনের (বাধ্যবাধকতা) কোন নিয়মই নেই। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড প্রাধান্য (লেগস্পিনার, গতিময় পেসার) দিতে বলেছে। তবে এটা নিয়ম নয়। আমাদের অভিজ্ঞ স্পিনারের ঘাটতি আছে। এটা প্লেয়িং কন্ডিশনের ওপর নির্ভর করছে।’

বিপিএল শুরুর আগেই এমন অনীহা গতিময় বোলার ও লেগস্পিনর খেলার বাধ্যবাধকতার বিষয়টি কোথায় গিয়ে ঠেকে সেটাই দেখার বিষয়। এমনিতেই বিপিএলে হঠাৎ নিয়ম পরিবর্তন বা নিয়ম ভাঙার উদাহরণ আছে অহরহ।

sheikh mujib 2020