advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

শুরু হয়ে গেল বিশেষ টুর্নামেন্ট বঙ্গবন্ধু  বিপিএল। বাইশ গজে ব্যাট-বলের যুদ্ধে অংশ নেওয়া দলগুলোকে নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের এই পর্বে থাকছে সিলেট থান্ডার। কেমন হলো দলটা? সিলেটের সার্বিক বিষয়াদি টোয়েন্টিফোর লাইভ নিউজ পেপারের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

sylhet thunder

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে থাকছে না কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। পুরো টুর্নামেন্ট পরিচালনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। বিসিবি দল সাজিয়েছে তাদের মতো করেই। অংশ নেওয়া প্রতিটি দলকেই দিয়েছে নতুন নাম। তাদের মধ্যে একটি সিলেট থান্ডার। বিপিএলের ইতিহাসের সিলেটের দলটার নামই সর্বোচ্চ চারবার পরিবর্তন করা হলো!

সিলেট সিক্সার্স, সিলেট রয়্যালস ও সিলেট সুপারস্টার্স। ইতোপূর্বে বিপিএলে এই তিনটি নামে অংশ নিয়েছিল সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। যে নামেই খেলুক সিলেট, বিপিএলে কখনোই বড় কোনো সাফল্য পায়নি তারা। শিরোপা জয় তো দূরের কথা, ফাইনালেই উঠতে পারেনি তারা!

এবার আরো একটা নতুন নাম- সিলেট থান্ডার। বিপিএলে সিলেটের এটা পঞ্চম আসর। এই আসরে শিরোপা জিততে মরিয়া তারা। কাণ্ডারী হিসেবে দলের তারকা খেলোয়াড়দের দিকেই চোখ থাকার কথা ছিল। কিন্তু সিলেট থান্ডারের প্রধান কোচ আরো বড় তারকা। দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি। তিনি হার্শেল গিবস। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তার ব্যাটেই প্রথম ছয় বলে ছয় ছক্কা দেখেছিল বিশ্ব।

তবে কিংবদন্তি গিবসকে পেলেও এই দলে বড় কোনো ক্রিকেটার নেই। কিন্তু ঝড় তোলার মতে কয়েকজন ক্রিকেটারই আছে। দলে আছেন মোসাদ্দেক হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপুর মতো জাতীয় দলের তরুণ ক্রিকেটাররা। সিলেটের স্বপ্নযাত্রায় আছে আরো একঝাঁক প্রতিভাবান উঠতি তারকা।

বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে আন্দ্রে ফ্লেচারকে দলে টেনেছে সিলেট। ড্রাফটের বাইরের দুই ক্রিকেটার মোহাম্মদ সামি ও  শেলডন কটরেলকে উড়িয়ে এনেছে তারা। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজ চলায় বিপিএলের শুরুর দিকে কটরেলকে পাওয়া যাবে না। শেষ দিকে যোগ দেবন ক্যারিবীয় পেসার।

সিলেটের অস্বস্তির আরেক কারণ- কাতারে চলমান টি-টেন ক্রিকেট লিগ। সেখানে খেলছেন তাদের দুই ব্যাটসম্যান শেফরান রাদারফোর্ড ও জনসন চার্লস। সবমিলিয়ে টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে ভালোই পরীক্ষা দিতে হবে সিলেটকে।

এক নজরে সিলেট থান্ডার:

অধিনায়ক: মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত

প্রধান কোচ: হার্শেল গিবস

বোলিং কোচ: ন্যান্টি হেওয়ার্ড

পরামর্শক: সারোয়ার ইমরান

পরিচালনায়: তানজিল চৌধুরী

পৃষ্ঠপোষক: গিবানি ফুটওয়্যার

সর্বোচ্চ সাফল্য: সেমিফাইনাল

পুরনো যতো নাম: সিলেট রয়্যালস, সিলেট সিক্সার্স, সিলেট সুপারস্টার্স

সিলেট থান্ডার স্কোয়াড:

দেশি: মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু, সোহাগ গাজী, রনি তালুকদার, নাঈম হাসান, দেলোয়ার হোসেন, মনির হোসেন, রুবেল মিয়া ও এবাদত হোসেন।

বিদেশি: শেরফান রাদারফোর্ড, শফিকউল্লাহ শাফাক, নাভিন-উল-হক, জীবন মেন্ডিস, শেলডন কটরেল, মোহাম্মদ সামি, জনসন চার্লস, আন্দ্রে ফ্লেচার ও ক্রিশমার সান্টোকি।

sheikh mujib 2020