advertisement
আপনি দেখছেন

স্কোয়াডে দেশিদের মধ্যে অধিনায়কত্ব করার মতো কেউ না থাকায় বেশ ঢাক ঢোল পিটিয়ে আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবিকে নেতা বানিয়েছিল রংপুর রেঞ্জার্স। ঢাকা, চট্টগ্রাম মিলিয়ে চার ম্যাচ খেলেও জয় না পাওয়াতে আজ নবিকে সরিয়ে দিয়েছে রংপুর। আরেক বিদেশি টম অ্যাবেলকে অধিনায়ক করে খেলতে নেমেছিল দলটি। এতেই বুঝি কাজ হলো! টুর্নামেন্টের প্রথম জয় পেয়েছে রংপুর।

rangpur won by 6 wickets

রংপুরের প্রথম জয়ে বড় অবদান লুইস গ্রেগরির। চট্টগ্রামের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের বিপক্ষে প্রথম দিকে বেশ বিপদেই পড়ে যায় রংপুর। কিন্তু চারে নেমে দারুণ একটা ইনিংস খেলে রংপুরকে জয় পাইয়ে দিয়েছেন গ্রেগরি। ৩৭ বল খেলে ৬ চার ৫ ছয়ে ৭৬ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। তার সঙ্গে ছিলেন ফজলে রাব্বি, ২১ বলে ৩৮ রান করেন। এই দুই ইনিংসের ওপর ভর করে ১৮.৪ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য ১৬৭ রান তোলে ফেলে রংপুর।

প্রথম ইনিংস:

এর আগে শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান অভিষ্কা ফেরনান্দোর ঝড়ো ইনিংসে ১৬৩ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। শুরুটা অবশ্য মোটেও ভালো হয়নি নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে ছাড়া খেলতে নামা চট্টগ্রামের।

চোটের কারণে আজও খেলতে পারেননি মাহমুদুল্লাহ। ওদিকে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ওভরেই শূন্য রানে আউট হয়ে যান ফর্মে থাকা লিন্ডল সিমন্স। বলের সঙ্গে পাল্টা দিয়ে রান করতে পারেননি চট্টগ্রামের পরের ব্যাটসম্যানরাও। তবে অভিষ্কা ফেরনান্দো খেলেছেন দুর্দান্ত একটা ইনিংস।

৪০ বল খেলে ৮ জার ৪ ছয়ে ৭২ রান করেন অভিষ্কা। এছাড়া নুরুল হাসান সোহান ১৭ বলে ২০ ও লিয়াম প্যাঙ্কেট ১২ বলে ১৭ রান করে অপরাজিত ছিলেন। রংপুরের হয়ে ৪ ওভারে ২৩ রান খরচায় দুই উইকেট তুলে নেন মোস্তাফিজুর রহমান। ২৭ রানে দুই উইকেট পেয়েছেন লুইস গ্রেগরিও।

দুদলের পরবর্তী ম্যাচ:

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বে আর খেলা নেই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও রংপুর রেঞ্জার্সের। দুদলের পরবর্তী ম্যাচ ঢাকা পর্বে। ২৭ ডিসেম্বর দুপুর ২ টায় ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে খেলবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সন্ধ্যা ৭টায় খুলনা টাইগার্সের মুখোমুখি হবে রংপুর রেঞ্জার্স।

আগামী দিনের ম্যাচ:

বিপিএলে আগামীকাল কোন ম্যাচ নেই। পরশু মাঠে গড়াবে দুটি ম্যাচ। দুপুর দেড়টায় দিনের প্রথম ম্যাচে কুমিল্লা ওয়ারিয়ার্স ও ঢাকা প্লাটুন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলতে নামবে খুলনা টাইটান্স ও রাজশাহী রয়্যালস। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।