advertisement
আপনি দেখছেন

ম্যাচজুড়ে ছড়াল উত্তেজনার রেণু। বহু রঙ ছড়ানো ম্যাচটার শেষ হয়েছে দারুণ এক থ্রিলারে। রোমাঞ্চকর ম্যাচে বাজিমাত করল শ্রীলঙ্কা। আজ ঘরের মাঠ কলম্বোতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে লঙ্কানরা হারাল এক উইকেটে। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয় গেল স্বাগতিক শিবির। আগামী বুধবার হাম্বানটোটায় দ্বিতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে।

wanindu hasaranga 2020

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সাত উইকেটে ২৮৯ রানের শক্তিশালী সংগ্রহ তোলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাব দিতে নেমে ইনিংসের পাঁচ বল বাকি থাকতে নাটকীয় জয় তুলে নেয় লঙ্কানরা। তাতেই সর্বোচ্চ রান তাড়ায় জয়ের রেকর্ড হলো কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে। ২২ বছর আগে এই মাঠে জিম্বাবুয়ের ছুড়ে দেওয়া ২৮১ রানের চ্যালেঞ্জ জিতেছিল লঙ্কানরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দিয়েছেন ওপেনার শাই হোপ। ক্যারিবীয় ওপেনার তুলে নেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের নবম শতক। ১১৫ রানের ইনিংসটি তিনি সাজান দশটি চারে। অতিথিদের বাকি ব্যাটসম্যানদের কেউ হাফসেঞ্চুরিও করতে পারেননি। ড্যারেন ব্রাভো ৩৯ এবং রোস্টন চেজ ৪১ রানে আউট হন। শেষ দিকে ঝড় তোলেন কিমো পল (৩২*) ও হেইডেন ওয়ালস (২০)।

কঠিন লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার ছুঁয়েছেন হাফসেঞ্চুরি। আভিশকা ফার্নান্দো ৫০ এবং অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ৫২ রানে আউট হন। ১১১ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে দ্বিতীয়জনের বিদায়ে। এই দুই ওপেনারের এনে দেওয়া মজবুত ভিত পাওয়ার পরও জয়ের জন্য বেশ কাঠখড় পোড়াতে হলো স্বাগতিকদের।

২১৫ রানে ছয় উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল ভালোই বিপদে পড়েছিল শ্রীলঙ্কা। এরপরই আটে নেমে হাল ধরেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। হাসি ফোটান স্বাগতিক দর্শকদের মুখে। ৪২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে হাসারাঙ্গা দলকে যেমন জিতিয়েছেন, তেমনি নিজে পেয়েছেন ম্যাচ সেরার স্বীকৃতি। তার সমান ৪২ রান করে আউট হন তিনে নামা কুসল পেরেরা। আরেক পেরেরা অর্থাৎ থিসারা পেরেরা ৩২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে রেখেছেন কার্যকর ভূমিকা।