advertisement
আপনি দেখছেন

ঘরের মাঠে বরাবরই স্পিনবান্ধব উইকেটে টেস্ট ক্রিকেট খেলে থাকে বাংলাদেশ। এবার সেই ধারা থেকে বেরিয়ে এলো টাইগাররা। জিম্বাবুয়েক লড়াইয়ের উপযোগী স্পোর্টিং উইকেট দিয়েছে বাংলাদেশ। তাতে বিস্মিত সফরকারীরা। তাদের ধারণা ছিল প্রথম দিন থেকেই উইকেটের টার্নিং বৈশিষ্ট্য থাকবে।

ervine celebrates after ton

স্বাভাবিকভাবেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে স্পিনশক্তির প্রস্তুতি নিয়ে এসেছে জিম্বাবুয়ে। অথচ মিরপুরে দেখা গেল সবুজ ঘাসের উইকেট। তাতে বিস্মিদ জিম্বাবুয়ের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন। ঢাকা টেস্টে আজ দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘উইকেট দেখে আমরা বিস্মিত হয়েছি। এটা দারুণ একটা উইকেট।’

মিরপুরে মাঠে টেস্টের পরাশক্তি দলগুলোর সঙ্গে স্পিন উইকেটে খেলে এসেছে বাংলাদেশ। প্রস্তুতি ‘কমন’ না পড়লেও প্রথম দিনে ভালোই করেছে জিম্বাবুয়ে। দিন শেষে ছয় উইকেটে ২২৮ রান করেছে সফরকারীরা। ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন আরভিন। আজ দিনভর উইকেটে মাটি কামড়ে পড়েছিলেন তিনি।

৩২৯ মিনিট উইকেটে দাঁড়িয়ে ব্যাট হাতে বাংলাদেশি বোলারদের সবটুকু শুষে নিয়েছেন আরভিন। স্বাভাবিকভাবেই তৃপ্ত তিনি, ‘অনেকেই বলে থাকে, ঢাকায় কী পাওয়া যাবে সেটা আগে থেকে অনুমান করা কঠিন। আসলেই তাই মনে হচ্ছে। আমার মতে এটা অনেক ভালো একটা উইকেট। তাই কিছুটা হলেও এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।’

মুমিনুলদের এগিয়ে রেখে প্রত্যাশার চাপ থেকে নির্ভার থাকার চেষ্টাই হয়তো শেষ বাক্যে করলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক।