advertisement
আপনি দেখছেন

সদ্য বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন সৌম্য সরকার। বিয়ে উপলক্ষ্যে আগেই ছুটি নিয়ে রেখেছিলেন তরুণ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। এদিকে, এই সুযোগে সৌম্যর বদলে প্রথমবার ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছেন তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ। এভাবে দলে ডাক পাওয়া নিশ্চয় চাপের। কারণ কদিন পরই ছুটি শেষ হবে সৌম্যর। ফলে জায়গা ধরে করতে হলে তাক লাগানো পারফরম্যান্সের বিকল্প নেই। নাঈম অবশ্য এসব চাপ আমলে নিচ্ছেন না।

mohammad naim flays one through the off side

তরুণ ব্যাটসম্যান বলছেন, চাপ নিয়ে খেলতেই পছন্দ করেন তিনি! জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজকে সামনে রেখে অনুশীলনে হাড়ভাঙা পরিশ্রম করছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। আজ অনুশীলনের ফাঁকে গণমাধ্যমের মুখোমুখী হয়ে তরুণ ওপেনার বললেন, ‘চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলার ব্যাপারটা মজাই লাগে আমার কাছে। সব সহজে হয়ে গেলে ভালো লাগে না। চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলাটা উপভোগ করি। সিনিয়র ভাইদের সঙ্গে খারাপ-ভালো এসব নিয়ে আলোচনা হয়। চাপের মুহূর্ত কীভাবে সামলাতে হয়, এসব নিয়ে কথা হয়।'

সৌম্য নেই বলে নাঈমের ওয়ানডে অভিষেক নিশ্চিত মনে করছেন অনেকেই। বাঁ-হাতি ক্রিকেটারকে টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকেও নাকি তেমন আভাস দেওয়া হয়েছে। নাঈম বলেন, ‘ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছি বলে ভালো লাগছে। স্যারদের সঙ্গে কথা হয়েছিল, যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলা হচ্ছিল। তখন তারা সাদা বলে অনুশীলন করতে বলেছিলেন। তারা আগেই বলেছিলেন, সামনে খেলা আছে।’

হঠাৎ দলে ডাক পাওয়া নাঈম জিম্বাবুয়ে সিরিজকে সামনে রেখে নিজেকে ভালোভাবেই প্রস্তুত করেছেন ‘সাদা বলের খেলা খুব উপভোগ করি। বাড়িতে গিয়ে সাদা বলে কাজ করেছি। কিছু জিনিস আমাকে বলে দেওয়া হয়েছে করার জন্য। এসব নিয়েই কাজ করছি। প্রস্তুতি সব মিলিয়ে ভালো। মূল একাদশে যদি সুযোগ পাই, আমার ১০০ ভাগ দেওয়ার চেষ্টা করব।’

গত বছরের নভেম্বরে ভারত সফরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পদার্পণ হয় নাঈমের। অভিষেক সিরিজেই নজর কেড়েছিলেন বাঁ-হাতি ওপেনার। সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে ২৬ ও ৩৬ রান করা নাঈম তৃতীয় ম্যাচে ৮১ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলে আলোচনায় উঠে আসেন। পাকিস্তান সফরের দুই ম্যাচের একটিতে করেছেন ৪৩, অন্যটিতে আউট হয়েছেন শূন্য রানে। সব মিলিয়ে পাঁচ টি-টোয়েন্টি খেলে ৩৭.২০ গড়ে ১৮৬ রান করেছেন নাঈম।