advertisement
আপনি দেখছেন

টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে দারুণ এক জয়ের পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি লড়াইয়ে নামার আগে চলুন বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের কিছু রেকর্ডসে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যায়।

ban team2

উভয় দল এখন অবধি ৭২টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে যেখানে এগিয়ে বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশের ৪৪ ওয়ানডে জয়ের বিপরীতে জিম্বাবুয়ের জয় ২৮ ম্যাচে। ঘরের মাঠে তো অপ্রতিরোধ্য বাংলাদেশ। দেশের মাটিতে খেলা ৪১ ওয়ানডে ম্যাচে বাংলাদেশের জয় ৩০ ম্যাচে আর জিম্বাবুয়ের জয় ১১টিতে। চমকপ্রদ ব্যাপার, দেশের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ বাংলাদেশ হেরেছে ২০১০ সালে এবং টানা ১৬ ম্যাচ পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙতে পারেনি জিম্বাবুয়ে দল।

জিম্বাবুয়ের মাটিতে অবশ্য এর উল্টো চিত্র! ২৮ ওয়ানডে ম্যাচে বাংলাদেশের জয় ১৩ ম্যাচে, জিম্বাবুয়ের ১৫ ম্যাচে।

আসন্ন ওয়ানডে সিরিজে প্রাণভোমরা সাকিব আল হাসানকে মিস করবে বাংলাদেশ। নিষেধাজ্ঞার ধরুন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে না থাকা এই অলরাউন্ডার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ও সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী বোলার। ৪৫ ম্যাচে ৪০ গড়ে ব্যাট হাতে ১৪০৪ রান ও ৭৪ উইকেট সাকিবের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩৭৪ রান ওপেনার তামিম ইকবালের। সর্বশেষ টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা মুশফিকুর রহিমের রান ১২৮৬, ৪০ গড়ে ৪৬ ম্যাচে এই রান করেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

উইকেটশিকারীর তালিকায় সাকিবের পরের অবস্থান অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার। ক্যারিয়ারের গোধূলি লগ্নে থাকা এই পেসার ৪২ ম্যাচে ২২ গড়ে নেন ৬৩ উইকেট। তৃতীয় সর্বাধিক উইকেট আব্দুর রাজ্জাকের, এই স্পিনারের শিকার ৩২ ম্যাচে ৫৬ উইকেট।

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচ যথাক্রমে ১, ৩ ও ৬ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। সবকটি ম্যাচই হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

sheikh mujib 2020