advertisement
আপনি দেখছেন

মাশরাফি বিন মর্তুজার অধিকয়ত্বেই আন্তর্জাতিক মঞ্চে অভিষেক হয়েছিল লিটন দাসের। তার ছোট্ট ক্যারিয়ারের অনেক বন্ধুর পথ মসৃণ হয়েছে অধিনায়কের কারণে। কাল অধিনায়ক মাশরাফিকে যেন কিছুটা হলেও প্রতিদান দিতে পারলেন লিটন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৭৬ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলে তিনি হলেন বাংলাদেশের জয়ের নায়ক; রাঙিয়ে দিলেন মহানায়কের বিশেষ ম্যাচটা।

mashrafe liton

বিশ্বকাপের পর বিয়ে করেছেন লিটন। এরপর থেকেই বদলে গেছেন তিনি। বাংলাদেশ ওপেনারও তা স্বীকার করেছিলেন। যার পূর্ণ প্রয়োগ তিনি দেখিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফির বিদায়ী সিরিজে। স্বাভাবিকভাবেই সতীর্থের এমন পারফরম্যান্সে ভীষণ খুশি ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’। এতটাই যে, লিটনকে ভারতের ব্যাটিং সেনসশন বিরাট কোহলির সঙ্গে তুলনা করলেন মাশরাফি।

শুক্রবার রাতে সিরিজ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেছেন, ‘'আমার দুজন ব্যাটসম্যানের ব্যাটিং দেখতে সবসময় ভালো লাগে।  একজন হচ্ছে  কোহলি, আরেকজন হচ্ছে লিটন। সবসময় বলি, অনেকেই ভালো প্লেয়ার আছে। কিন্তু ও  যতক্ষণ উইকেটে থাকে দেখতে ভালো লাগে, আমি লিটনকে এটা অনেক আগে থেকেই বলে আসছি। আমি সবসময় বিশ্বাস করি ও যে কোনো সময় ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে।’ ম্যাচ ও সিরিজ সেরা লিটনের পাশে বসেই তাকে সেরার প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন মাশরাফি।

কয়েক বছরের ক্যারিয়ারে লিটন ব্যাট করেছেন কয়েকটা পজিশনেই। কিন্তু ওপেনিং সবসময়ই তার পছন্দের জায়গা। এনিয়ে মাশরাফি বলেছেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে (এনামুল হক) বিজয়কে দিয়ে ওপেনিং করিয়েছি। ও তখন একটা কথাই বলেছে, আমাকে আমার পছন্দের পজিশনে পাঠান, ব্যর্থ হলে সেটার দায়িত্ব আমিই নিব। পরবর্তীতে আমি ওকেই ওপেনিংয়ে পাঠিয়েছি। আমি পরশু দিনও (বুধবার) বলছিলাম এখন ওর রান করার সেরা সময়। আমার বিশ্বাস যে এখন ও রান করবে। ভারতের সাথে ফাইনালে যে এক শ’টা ও করেছে; আমার মতে ওটাই ওর স্বাভাবিক খেলা।’

sheikh mujib 2020