advertisement
আপনি দেখছেন

ওয়ানডে সিরিজের রানস্রোত টি-টোয়েন্টিতেও বয়ে আনলো বাংলাদেশ। আজ মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কুড়ি ওভারের প্রথম ম্যাচে যথারীতি বিধ্বংসী মেজাজে হাজির হলেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। দুইজনই ছড়ি ঘুরিয়েছেন জিম্বাবুয়ে বোলারদের ওপর। ‍ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টিতেও রেকর্ড গড়লেন তারা।

tamim liton12

এদিনও টস হেরেছে বাংলাদেশ। তবু টাইগারদের ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক শেন উইলিয়ামস। ব্যাট হাতে শুরু থেকেই আগ্রাসী মেজাজে ব্যাট করেন তামিম-লিটন। দশ ওভার শেষে বিনা উইকেটে ৯১ রান যোগ করেন টাইগার ওপেনাররা।

দুই ওপেনারই হাফসেঞ্চুরির পথে হাঁটছিলেন। কিন্তু আশা জাগিয়েও তামিম ফিরে গেছেন। ৩৩ বলে ৪১ রানে আউট হয়েছেন তিনি। ফেরার আগে ইনিংসে তিনটি চার ও দুটি ছক্কা হাকিয়েছেন তামিম। মাধভেরের বলে উইলিয়ামসকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি।

তামিমের আউটে ভাঙলো ৯২ রানের রেকর্ড জুটি।  এই জুটিতে নিজেদের পুরনো রেকর্ডটা নতুন করে লিখলেন দুই ওপেনার। বাংলাদেশের পক্ষে আজ দুইজন মিলে গড়েছেন টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রানের উদ্বোধনী জুটির রেকর্ড। তাদের আগের রেকর্ডটা ছিল ৭৪ রানের।

২০১৮ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই জুটি ভেঙেছিল তামিম-সৌম্যর রেকর্ড। কয়েক দিন আগে সিলেটে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ২৯২ রানের জুটি গড়ে নতুন ইতিহাস গড়েছিলেন তামিম-লিটন। এবার টি-টোয়েন্টিতেও নতুন রেকর্ড।

তামিম অর্ধশতকের আগেই ফিরেছেন। তবে হাফসেঞ্চুরি করেছেন তার সঙ্গী। ৩৯ বলে ৫৯ রানে সাজঘরে ফিরেছেন লিটন। ইনিংসে পাঁচটি চারের সঙ্গে তিনটি ছক্কা মেরেছেন তিনি। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৩ ওভারে তিন উইকেটে ১০৬ রান করেছে বাংলাদেশ।