advertisement
আপনি দেখছেন

সর্বকালের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ক্রিকেট থেকে দূরে আছেন কয়েক মাস হবে। কার্যত যুক্তরাষ্ট্রে আছেন তিনি। মার্কিন মুল্লুকে আছেন তার রাজকন্যা এবং স্ত্রী-ও। তবু তাদের থেকে বিচ্ছিন্ন আছেন সাকিব। নেপথ্য কারণ মহামারি করোনাভাইরাস।

bangladesh t 20 captain sakib 1

করোনার প্রকোপে স্তব্ধ হয়ে আছে পুরো পৃথিবী। এ সময়ে নিজের সুরক্ষায় সাকিবও নিজেকে সবার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেললেন। আজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে অফিসিয়াল পেজে এক ভিডিও বার্তায় সাকিব জানিয়েছেন নিজেকে আইসোলেটেড করে রেখেছেন তিনি।

বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক ভিডিওবার্তায় বলেছেন, ‘একটা অভিজ্ঞতা শেয়ার করি। যখন আমি যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছলাম, আমি সোজা একটি হোটেলের রুমে উঠেছি। আমি তাদের অবগত করেছি, এখানে থাকব কিছুদিন। আমি যেহেতু বিমানে চড়ে এসেছি আমার একটু হলেও ঝুঁকি আছে। তাই আমি নিজেকে আইসোলেটেড করে রেখেছি। এ কারণে আমি আমার বাচ্চার সাথে দেখা করিনি। এটা অবশ্যই আমার জন্য কষ্টের।'

ভিডিওবার্তয় ভক্তদের ও বিশ্বের সবাইকে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন সচেতনার কথা জানান সাকিব। মানুষকে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্কতা অলবম্বনের অনুরোধ করেন তিনি। অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ পরিহার করতে খুব করেই অনুরোধ করেছেন সাকিব।

সাকিব ক্রিকেট থেকে দূরে রয়েছেন দুই বছরের নিষেধাজ্ঞায় (এক বছর স্থগিত)। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করার অপরাধে শাস্তি পান এই বাঁ-হাতি ক্রিকেটার।