advertisement
আপনি দেখছেন

সকালটা সবসময় দিনের সঠিক পূর্বাভাস দেয় না। রোজ বৌলে রৌদ্রজ্জ্বল আকাশ যেন পুরো দিনের মিথ্যে প্রতিচ্ছবি। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আাঁধার নেমে আসে স্টেডিয়ামে। ‍সূর্য পশ্চিমাকাশে হেলে পড়তেই ঝুম বৃষ্টি। অবিরাম বৃষ্টি ঝরল সাউদ্যাম্পটনের আকাশজুড়ে। বৃষ্টিভেজা দিনটা ইংল্যান্ড-পাকিস্তান দ্বিতীয় টেস্টের রোমাঞ্চেই জল ঢেলে দিল!

james anderson celebrates a wicket

তবু দিনটা ইংল্যান্ডের। বৃহস্পতিবার প্রথম ইনিংসের দ্বিতীয় সেশনেই পাকিস্তানের টুটি চেপে ধরেছে স্বাগতিক শিবির। ইংলিশ পেসে নাজেহাল সফরকারী ব্যাটসম্যানরা হঠাৎই সাজঘরে আসা-যাওয়ার মিছিল শুরু করেন। উইকেটের লাগাম টেনে ধরে বৃষ্টি। বৃষ্টির দাপটে পরে আর বল মাঠেই গড়াল না। প্রথম দিন খেলা হলো ৪৫.৪ ওভার।

এই সময়ের মধ্যেই পাকিস্তান হারিয়েছে পাঁচ উইকেট। দিন শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১২৬ রান। ইনিংসের শুরুটাও ভালো হয়নি সফরকারীদের। দলীয় সংগ্রহ দুই অংকে যাওয়ার আগে সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার শান মাসুদ (১)। ধাক্কাটা প্রায় সামলে উঠেছিল পাকিস্তান। অধিনায়ক আজহার আলি ও আরেক ওপেনার আবিদ আলির ব্যাটে প্রতিরোধ; জুটি হয় ৭২ রানের।

প্রতিরোধ গুঁড়িয়ে দেন জিমি অ্যান্ডারসন; কুড়ি রানে ফেরান পাক অধিনায়ককে। ম্যাচে এটা তার দ্বিতীয় শিকার। দলীয় শতক ছুঁতেই আউট হন আবিদ। ফেরার আগে সাতটি চারে ৬০ রান করেন এই ওপেনার। আবিদ ফিরতেই চূড়ান্ত ছন্দপতন হয় পাকিস্তানের ১২০ রানে পাঁচ উইকেট খোয়ায় তারা। আসাদ শফিক ও ফাওয়াদ আলম এলেন আর গেলেন। আশার প্রদীপ হয়ে ২৫ রানে টিকে থাকলেন বাবর আজম।

sheikh mujib 2020